kalerkantho

শুক্রবার । ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭। ৭ আগস্ট  ২০২০। ১৬ জিলহজ ১৪৪১

মিথ্যে স্বপ্ন বেচা

সাদা-কালো নিয়ে বলিউড সুন্দরী বিপাশা বসুর আবেগঘন কথামালা এখানে

২ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মিথ্যে স্বপ্ন বেচা

অভিষেক ছবিতেই তাঁকে পড়তে হয়েছিল বিড়ম্বনায়। ২০০১ সালে মুক্তি পাওয়া ‘আজনবি’তে বিপাশার সঙ্গে ছিলেন অক্ষয় কুমার, কারিনা কাপুর ও ববি দেওল। ত্বকের রং ‘কালো’ বলে বিপাশাকে ‘কালো বিড়াল’ বলেছিলেন ফরসা ত্বকের অভিনেত্রী কারিনা। এ নিয়ে সে সময় কম লেখালেখি হয়নি ভারতীয় পত্রিকায়। চুপ করে ছিলেন বিপাশা। মুখ খুললেন এত দিন পর। ত্বকের রং নিয়ে বিতর্ক এখন বিশ্বজুড়ে। এমন সময় ত্বকের রং ফরসাকারী ক্রিম প্রস্তুতকারী ভারতীয় একটি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্যের নাম থেকে ‘ফেয়ার’ শব্দটি বাদ দিয়ে দেয়। সেই সংবাদ ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে আবেগঘন কিছু কথা লেখেন বিপাশা।

‘সেই ছোটবেলা থেকে বোনের সঙ্গে আমাকে তুলনা করে বলা হতো, সোনির চেয়ে বনি [বিপাশার ডাকনাম] অনেক কালো, না? আত্মীয়-স্বজন সবার মুখেই এক কথা, বনি কালো। বনির গায়ের রংই যেন তার পরিচয় হয়ে উঠেছিল।’ সেই ছোট্ট বনি মুম্বাই পৌঁছে। সুপারমডেল প্রতিযোগিতায় ছিনিয়ে নেয় প্রথম স্থান। বিপাশা ভেবেছিলেন, এবার হয়তো তাঁর গুণের কদর হবে। গুণের কদর হলো। তবে পরের দিনই খবরের কাগজে বড় অক্ষরে ছাপা হলো, ‘কলকাতার কালো মেয়েটির মাথায় বিজয়ীর মুকুট।’ পরিশ্রমী নয়, সুন্দরী নয়, বিপাশার নামের আগে শোভা পেল ‘কালো’ বিশেষণ।

২০০৩-এর পর একের পর এক হিট ছবি উপহার দিলেন বিপাশা। ‘জিসম’, ‘রাজ’ করে বিপাশা আকাশ ছুঁয়ে ফেলছেন ক্রমেই। তাতে কী? মিডিয়ার চোখে তিনি তো ‘কালো’। বড় অক্ষরে শিরোনাম হলো, গায়ের রংই বিপাশার আবেদনময়ী শরীরের ইউএসপি। নায়িকার হবে ঢলঢলে চোখ, দুধে আলতা গায়ের রং; ‘কালো’ মেয়ে আবার নায়িকা হয় নাকি! আর সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে রং ফরসাকারী ক্রিম প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলো কোটি কোটি টাকার প্রস্তাব নিয়ে গিয়েছিল বিপাশার কাছে। ‘কালো’ নায়িকা তাদের ক্রিম মেখে রাতারাতি ফরসা হয়ে যাচ্ছে, এটা দেখাতে পারলেই কেল্লা ফতে!

মুখের ওপর না বলে দিয়েছিলেন বিপাশা। একটা দেশে যেখানে বেশির ভাগ মানুষের গায়ের রং কালো, সেখানে ‘ফেয়ার’ কী করে ‘লাভলি’ হয়ে গেল তা আজও বুঝতে পারেননি বিপাশা। তাঁর কথায়, ‘এ এক শিকড়ে গাঁথা কলঙ্ক। এ এক মিথ্যে স্বপ্ন বেচা।’

[বিপাশা বসুর ইনস্টাগ্রাম পোস্ট ও আনন্দবাজার পত্রিকা অবলম্বনে]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা