kalerkantho

বুধবার । ৩১ আষাঢ় ১৪২৭। ১৫ জুলাই ২০২০। ২৩ জিলকদ ১৪৪১

দ্য শো মাস্ট গো অন

করোনার কারণে বেশির ভাগ টিভি অনুষ্ঠানেরই শুটিং বন্ধ। এর মধ্যেও ঠিকই চলছে কিছু রিয়ালিটি শো। লিখেছেন লতিফুল হক

৪ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



দ্য শো মাস্ট গো অন

বাড়ি থেকে ‘স্যাটারডে নাইট লাইভ’ উপস্থাপনা করেন টম হ্যাংকস

ঘরে বসেই সুপার সিঙ্গার

স্টার জলসার সংগীতবিষয়ক রিয়ালিটি শো ‘সুপার সিঙ্গার’। কিন্তু মার্চে লকডাউনের কারণে শুটিং বন্ধ হওয়ায় হঠাৎ থেমে যায় শোটির নতুন পর্ব প্রচার। তবে বেশিদিন নয়, এপ্রিলেই পর পর দুই সপ্তাহে নতুন নতুন পর্ব নিয়ে এসে চমকে দেয় অনুষ্ঠানটি। প্রতিযোগী, বিচারক থেকে উপস্থাপক—সবাই যাঁর যাঁর বাড়ি থেকে কাজ করেন মোবাইল ফোনে। প্রথমে নির্দিষ্ট বিষয়ে প্রতিযোগীরা যাঁর যাঁর বাড়িতে থেকেই গান রেকর্ড করে পাঠান। সেটা দেখে যিশু সেনগুপ্ত নিজ বাড়িতে বসেই উপস্থাপনা করেন। তিন বিচারক কুমার শানু, অনুরাধা পাড়োয়াল ও কৌশিকী চক্রবর্তীও একইভাবে কাজ করেন। এরপর এমনভাবে সম্পাদনা করে প্রচার করা হয়, যাতে সমন্বয়হীন মনে না হয়। ‘মোবাইলে কাজ করেও আমরা ভালো সাড়া পেয়েছি। তবে ভিডিওর মান স্বাভাবিকভাবেই অতটা ভালো হয়নি। অনেকের বাড়িতেই ভালো ক্যামেরা আছে, কিন্তু সেটা দিয়ে শুট করলে ফাইলের আকার বড় হয়ে যেত। তখন পাঠানো ঝামেলা হতো। ভার্চুয়ালে শো করেও বেশ মজা পেয়েছি,’ বলেন যিশু।

 

পিছিয়ে নেই অমিতাভও

প্রথমবারের মতো অনলাইনেই কার্যক্রম শুরু করেছে ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’। ভার্চুয়াল শোর অংশ হতে পেরে দারুণ খুশি উপস্থাপক অমিতাভ বচ্চন। মূল শো শুরুর অবশ্য দেরি আছে, আপাতত চলছে অডিশন। এর আগে বাড়ি থেকেই শোর প্রমো রেকর্ড করে পাঠিয়েছেন ‘বিগ বি’। ‘নিতেশ [শোর পরিচালক] আমাকে বিস্তারিত নির্দেশনা দিয়েছে, এ ছাড়া আগের পর্বগুলো করার অভিজ্ঞতা তো আছেই। সব মিলিয়ে ঘরে বসেই শুটিং করে পাঠিয়ে দিয়েছি।’ ভার্চুয়ালি শুটিং করার অভিজ্ঞতা নিয়ে ভীষণ রোমাঞ্চিত অমিতাভ, ‘এই লকডাউনের সময়ে আমি যা যা শিখলাম, জানলাম আর উপলব্ধি করলাম, তা আমার এই ৭৮ বছরের জীবনকালেও পারিনি।’

 

জ্যাকুলিনের নাচের শো

২৫ মে শুরু হয়েছে ভার্চুয়াল নাচের রিয়ালিটি শো ‘হোম ডান্সার’। এ ধরনের শো ভারতে এই প্রথম। অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ‘ডিজনি+হটস্টার’-এ দেখা

যাচ্ছে শোটি। এটির সেলিব্রিটি পারফরমার জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ। শোটি নিয়ে ‘ডিজনি+হটস্টার’ এক বিবৃতিতে বলে, ‘এমন অভিনব শো নিয়ে আমরা খুবই রোমাঞ্চিত। যে কেউ তাঁর ঘরে ধারণ

করা নাচের ভিডিও পাঠিয়ে দিয়ে এতে অংশ নিতে পারবেন। গানের শোতে বাদ্যযন্ত্র বাজানো, গানের শব্দ ধারণের মান নিয়ে কিছুটা সংশয় থাকে, নাচে

এমন কোনো ব্যাপার নেই। প্রচুর সাড়া পাচ্ছি।’ প্রাথমিকভাবে সবাইকে এক থেকে দেড় মিনিটের ভিডিও জমা দিতে বলেছে কর্তৃপক্ষ। জ্যাকুলিন বলেন, ‘নাচের প্রতিভা তুলে আনার জন্য এটি একটি দারুণ উদ্যোগ। মনে হচ্ছে, খুব ভালো কিছু প্রতিভা উঠে আসবে। এই শোতে অংশ নিয়ে মানসিকভাবে দারুণ চাঙ্গা থাকতে পারব।’

 

স্যাটারডে নাইট লাইভ আর আমেরিকান আইডল

করোনার শুরুতে হোঁচট খেলেও পরে ঠিকই ভার্চুয়ালে চালিয়ে নেওয়া হয় ‘স্যাটারডে নাইট লাইভ’। এমনকি করোনা থেকে সেরে উঠার পর জনপ্রিয় এই শোর একটি পর্ব বাড়ি থেকেই উপস্থাপনা করেন টম হ্যাংকস। গেল মাসেই ‘স্যাটারডে নাইট লাইভ’ শেষ করেছে ৪৫তম সিজন। ‘আমরা বাড়ি থেকেই ছোট ছোট ক্যামিও ভিডিও তৈরি করেছি। এরপর সেগুলো একসঙ্গে করে প্রচারিত হয়েছে। ভার্চুয়ালি করায় হয়তো আমাদের শোর মজা কিছুটা নষ্ট হয়েছে, কিন্তু দর্শক তাতেই খুশি। লকডাউনের কারণে প্রায় সবাই ঘরবন্দি ছিল, তাই আমাদের শো প্রচুর মানুষ দেখেছে,’ বলেন অনুষ্ঠানটির এক প্রযোজক।

একই পথে হেঁটেছে জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো ‘সারভাইভার’। ধরন অনুযায়ী শোটি ঘরে থেকে করা সম্ভব না। তাই একেবারেই নির্জন এলাকায় এর চিত্রায়ণ করা হয়। তবে সরাসরি দর্শক উপস্থিতিতে প্রতিযোগীদের ভোট এবার ছিল না। নেওয়া হয়েছে অনলাইন ভোট। একই পথে হেঁটেছে ‘আমেরিকান আইডল’ও। তিন বিচারক কেটি পেরি, লিওনেল রিচি, লুক ব্রায়ান কাজ করেছেন বাড়ি থেকে। খণ্ড খণ্ডভাবে চিত্রায়ণ হওয়ায় মে মাসে এটির কয়েকটি পর্ব ধারণ করা হয় ৪০টিরও বেশি স্থান থেকে! গেল মাসে শোটির ফিনালেও হয়েছে ভার্চুয়ালি। এবারের বিজয়ী জাস্ট স্যাম ঢুকে পড়েছেন ইতিহাসেও। তিনিই প্রথম ভার্চুয়াল আমেরিকান আইডল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা