kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৪ চৈত্র ১৪২৬। ৭ এপ্রিল ২০২০। ১২ শাবান ১৪৪১

হলিউড-বলিউড প্রেরণা

অস্কারের মাধ্যমে নতুন করে পরিচিতি পেলেও অনেক দিন ধরেই হলিউড-বলিউডে কোরীয় সিনেমার রিমেক চলছে। কয়েকটির কথা জানাচ্ছেন মামুনুর রশিদ

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হলিউড-বলিউড প্রেরণা

‘ভারত’-এ সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ

হলিউড

 

২০০৬ সালে ‘ দ্য লেক হাউস’-এ কিয়ানু রিভস আর সান্দ্রা বুলকের জুটি ভালোই জমেছিল। ছবিটি কোরীয়

‘ইল মার’-এর ইংরেজি রিমেক। ছবির গল্প এক নিঃসঙ্গ ডাক্তারকে নিয়ে। ছবিটি মোটামুটি চলেছিল। রোমান্টিক ছাড়া কোরীয় হরর সিনেমার রিমেক বেশি হয়েছে হলিউডে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি উল্লেখ করা যায় ‘মিরর’ ও ‘আ টেল অব টু সিসটার্স’-এর কথা। প্রথমটি ২০০৩ সালের কোরীয় ‘ইন টু দ্য মিরর’-এর রিমেক। গল্প একটি শপিং মলের নিরাপত্তারক্ষীকে নিয়ে। যিনি রহস্যময় কয়েকটি মৃত্যু রহস্য সমাধানের চেষ্টা করেন। যেগুলোর সঙ্গে আয়নার একটি যোগসূত্র আছে। মূল ছবিটি ছিল কিম সাং-হোর অভিষেক ছবি। রিমেকটি সমালোচকদের কাছে ততটা বাহবা না পেলেও ব্যাপক ব্যবসা সফল হয়েছিল। ‘দ্য আনইনভাইটেড’ কোরীয় ‘আ টেল অব টু সিসটার্স’-এর রিমেক। এমিলি ব্রাউনিং, এলিজাবেথ বাংকস অভিনীত ছবিটিও ভালো ব্যবসা করেছিল। মূল ছবিটি তৈরি হয়েছিল কোরীয় লোককথা থেকে। রোমান্টিকের মধ্যে ‘মাই স্যাসি গার্ল’ রিমেক হয় ২০০৮ সালে। মূল ছবিটি ব্যাপক সাফল্য পেলেও রিমেকটি তত জনপ্রিয় হয়নি। একই কথা বলা যায় ‘ওল্ডবয়’-এর ক্ষেত্রেও। পার্ক চান-উকের মূল ছবিটি কোরীয় ইতিহাসেরই অন্যতম আইকনিক সিনেমা। কিন্তু স্পাইক লির করা রিমেকটি বক্স অফিসে একেবারেই মুখ থুবড়ে পড়ে। পরিচালকের ক্যারিয়ারের সবচেয়ে দুর্বল ছবি মনে করা হয় এটিকে।

 

বলিউড

এর আগে কোরীয় থেকে ‘আওয়ারাপান’, ‘এক ভিলেন’, ‘ডো লাফজো কি কাহানি’, ‘সিং ইজ ব্লিং’, ‘জিন্দা’, ‘রকি হ্যান্ডসাম’ ইত্যাদি ছবি হয়েছে। তবে তখন এসব নিয়ে তত আলোচনা ছিল না। কিন্তু হালে কয়েকটি রিমেক ব্যবসা সফল হওয়ায় সবাই নড়েচড়ে বসেছে। এর মধ্যে কোরীয় ‘মন্তাজ’ থেকে ‘তিন’ করেন ঋভু দাশগুপ্ত। অমিতাভ বচ্চনকে নিয়ে কলকাতায় শুটিং করা ছবিটি বেশ আলোচিত হয়েছিল। তবে কোরীয় রিমেকের মধ্যে সবচেয়ে সফল নিঃসন্দেহে ‘ভারত’। গেল বছর মুক্তি পাওয়া সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফের ছবিটি ৩০০ কোটি রুপিরও বেশি ব্যবসা করেছে। এটি কোরীয় ‘ওড টু মাই ফাদার’-এর রিমেক। মূল ছবিটি সবচেয়ে ব্যবসা সফল কোরীয় ছবির তালিকায় চতুর্থ স্থানে আছে।

 

২০১৫ সালে সঞ্জয় গুপ্তর

ক্রাইম-থ্রিলার ‘জজবা’তে অভিনয় করেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। এটি ‘সেভেন ডেজ’-এর রিমেক। পাঁচ বছর বিরতির পর ঐশ্বরিয়ার কামব্যাক ছবিটি ব্যাপক ব্যবসা না করলেও মোটামুটি লাভের মুখ দেখেছিল। সাম্প্রতিক সময়ে অনেকগুলো কোরীয় রিমেকের কথা শোনা যাচ্ছে। এর মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ‘আ হার্ড ডে’। শোনা যাচ্ছে সুজয় ঘোষের ছবিটিতে শাহরুখ খান অভিনয় করবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা