kalerkantho

শনিবার । ২১ চৈত্র ১৪২৬। ৪ এপ্রিল ২০২০। ৯ শাবান ১৪৪১

জানা-অজানা

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



♦          ষাটের দশককে কোরীয় ছবির স্বর্ণযুগ বলা হয়। এই দশকে নির্মিত হয় ‘দ্য হাউজমেইড’, ‘অবালটান’-এর মতো ক্লাসিক। নব্বইয়ের দশক থেকে নিউ ওয়েভ কোরীয় ছবির জোয়ার শুরু হয় যা এখনো চলছে।

♦          কোরিয়ার চলচ্চিত্রের উত্থানের সঙ্গে দেশটিতে চলচ্চিত্র ব্যবসাও বেড়েছে। বুসান চলচ্চিত্র উত্সব হয়ে উঠেছে এশিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী ও বড় চলচ্চিত্র উত্সব। 

♦          গেল দশকে ওয়ার্নার ব্রস, টোয়েন্টিথ সেঞ্চরি ফক্সের মতো হলিউড স্টুডিও কোরীয় ছবিতে কাজ করেছে। ২০১৬ সালে দুই হলিউড স্টুডিওর করা ‘দ্য এজ অব শ্যাডোজ’ ও ‘দ্য ওয়েলিং’ দুর্দান্ত ব্যবসা করে।

♦          ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া এপিক ওয়ার ড্রামা ‘দ্য অ্যাডমিরাল—রোরিং কারেন্টস’ সবচেয়ে ব্যবসা সফল কোরীয় ছবি। এটি বিশ্বব্যাপী ১৩ কোটি ৮৩ লাখ ডলার ব্যবসা করে।

♦          দেশটির চলচ্চিত্রের সবচেয়ে পুরনো ও মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার হলো গ্রান্ড বেল অ্যাওয়ার্ডস। এটিকে কোরিয়ান অস্কার পুরস্কারও বলা হয়।

♦           দক্ষিণ কোরিয়ায় কোনো সেন্সর বোর্ড নেই। রেটিংয়ের মাধ্যমে মুক্তির জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা