kalerkantho

বুধবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ১ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

ভদ্রলোকদের নিয়ে

দীর্ঘ বিরতির পর নিজের বড় শক্তির জায়গা গ্যাংস্টার ঘরানার ছবি নিয়ে ফিরছেন গাই রিচি। তাঁর বহু তারকাময় ছবি ‘দ্য জেন্টলম্যান’ মুক্তি পাবে আগামীকাল। ছবিটি নিয়ে লিখেছেন হাসনাইন মাহমুদ

২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভদ্রলোকদের নিয়ে

গেল বছর বক্স অফিসে ‘আলাদিন’ এক বিলিয়ন ডলারের বেশি আয় করে। এর পরও অখুশি ছিলেন গাই রিচির ভক্তরা। ব্রিটিশ এই পরিচালক যে গ্যাংস্টার ঘরানার চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য ভক্তদের মনে পাকাপোক্ত স্থান করে নিয়েছেন। আলাদিন-টালাদিনে তাঁদের পোষাবে কেন। ‘লক স্টক অ্যান্ড টু স্মোকিং ব্যারেলস’, ‘স্ন্যাচ’, ‘রিভলভার’-এর মতো ছবির পরিচালক অবশ্য অনেক দিন ধরেই নিজের ‘রাজত্ব’ থেকে দূরে। তবে এই দশকের শুরুতেই উপহার দিতে যাচ্ছেন নতুন একটি গ্যাংস্টার চলচ্চিত্র—‘দ্য জেন্টলম্যান’। এটির কাহিনি লন্ডনে এক মার্কিন প্রবাসী মিকির জীবন ঘিরে, যিনি লন্ডনে গড়ে তুলেছিলেন বিশাল গাঁজার রাজত্ব। একপর্যায়ে তিনি ব্যবসা গুটিয়ে চলে যেতে চাইলে শুরু হয় ষড়যন্ত্র। মিকির গড়ে তোলা সাম্রাজ্য পড়ে হুমকির মুখে। ছবির প্রধান চরিত্রে আছেন ম্যাথু ম্যাকনহে। তারকাবহুল এই চলচ্চিত্রে আরো অভিনয় করেছেন চার্লি হুন্নাম, হেনরি গোল্ডিং, কলিন ফেরেল, হিউ গ্র্যান্টের মতো অভিনেতারা।

গত দশকে গাই রিচি চারটি চলচ্চিত্র উপহার দিলেও ছিল না কোনো মৌলিক গল্প। ‘শার্লক হোমস’ কিংবা ‘আলাদিন’ নিয়ে তাঁর নিরীক্ষা সফল হলেও বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছিল ‘কিং আর্থার’ কিংবা ‘দ্য ম্যান ফ্রম ইউএনসিএলই’। এবারের গল্পটি সম্পূর্ণ মৌলিক। স্বয়ং পরিচালকও বেশ উচ্ছ্বসিত চলচ্চিত্রটি নিয়ে।

‘কিং আর্থার’-এর পর আবারও গাই রিচির চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন চার্লি হুন্নাম। গত দশকের অন্যতম ফ্লপ হিসেবে ‘কিং আর্থার’ পরিচিতি পেলেও ‘দ্য জেন্টলম্যান’ নিয়ে আশাবাদী তিনি, ‘এবার এত কলাকুশলীকে দেখতেই দর্শক থিয়েটারে আসবে।’

‘ক্রেজি রিচ এশিয়ানস’-এ বিলিয়নেয়ার পরিবারের আকর্ষণীয় উত্তরাধিকারের চরিত্রে অভিনয় করে হাজারো দর্শকের হূদয় জয় করেছিলেন হেনরি গোল্ডিং। এ চলচ্চিত্রে তাঁকে দেখা যাবে চীনা গ্যাংস্টারের ভূমিকায়।

 

ফ্যাক্টস

♦ শুরুতে ছবিতে ছিলেন কেট বেকিনসেল। কিন্তু শুটিং শুরুর দুই দিন পর তিনি বাদ পড়েন। তাঁর জায়গা নেন মিচেল ডকরি।

♦ বেশির ভাগ সমালোচকই এটিকে গড়পড়তা ছবি বলেছেন। রটেন টমাটোজে ৭৬ শতাংশ রেটিং পেয়েছে ছবিটি, মেটাক্রিটিকে স্কোর করেছে ৪৯।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা