kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

গোলাপের সুবাসে ভরে যাক শহর

বিজয়ের মাস উপলক্ষে প্রথম দেশাত্মবোধক গান প্রকাশ করতে যাচ্ছে চিরকুট। তার আগে গত শুক্রবার প্রকাশ পেয়েছে তাদের নতুন সিঙ্গেল ‘গোলাপের কাঁটা’। ব্যান্ডটির সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছেন নাবীল অনুসূর্য

১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে




গোলাপের সুবাসে ভরে যাক শহর

‘কবি হাসে, টাকা ভাসে, গঙ্গা বুড়ির শহরে’—‘চিরকুট’-এর অন্যতম জনপ্রিয় গান ‘জাদুর শহর’-এর কথা। এর আগে-পরেও ব্যান্ডটির অনেক গানে এসেছে প্রাণের শহর ঢাকার প্রসঙ্গ। সে কথা জানালেন ভোকাল শারমিন সুলতানা সুমি নিজেই—‘আসলে আমাদের প্রতিদিনের জীবনযাপনে এই শহর এমনভাবে জড়িয়ে গেছে যে একে নিয়ে গান না করে উপায় নেই!’ [হাসি] তাঁদের নতুন গানটিও এর ব্যতিক্রম নয়। সেটা সুমি জানালেন বিস্তারিত ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ করেই—‘শহর সুন্দর। অনেকটা গোলাপের মতো। যেমন সুন্দর, তেমনি কাঁটাও আছে। এখানে জীবন চলার পথে অনেক বাধা, অনেক মুখোশ, অনেক না-পাওয়া, অনেক অবহেলা। মানুষকে প্রতিমুহূর্তে ধাক্কা খেতে হয়। সেই অনুভূতিগুলো আমাদের একা করে তোলে। সেসব নিয়েই এই গান।’ এর মধ্য দিয়ে নতুন এক শহরের প্রত্যাশার কথাই জানিয়েছে ‘চিরকুট’। ‘প্রতিটি মানুষের জীবনই কিন্তু একেকটা গোলাপ। যখন মানুষের জীবনে সুখের সময় আসে, তখন তার চারপাশের সব কিছুই খুব সুন্দর। গোলাপের সৌন্দর্য-সুবাসের মতো। আর খারাপ সময়টা কাঁটার মতো। আমাদের প্রত্যাশা, কারো জীবনেই গোলাপের কাঁটা না থাক। গোলাপের সুবাসেই শহর ভরে যাক’—বলেন সুমি।

গানের এই বক্তব্য ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করা হয়েছে ভিডিওটিতেও। অবশ্য সেটা নিজেরাই বানিয়েছেন বলে জানালেন ড্রামার পাভেল অরিন—‘ভিডিওটা কিন্তু পেশাদার কাউকে দিয়ে বানানো হয়নি। বন্ধুদের নিয়ে আমরাই বানিয়েছি। বলা যায় একটা আনাড়ি প্রয়াস।’

এমনিতেই ‘চিরকুট’ অন্য ব্যান্ডগুলোর তুলনায় একটু ভিন্ন ধাঁচের গান করে। সেটা স্বীকার করে নিয়ে লিড গিটারিস্ট ইমন চৌধুরী বললেন, “আমাদের গানের ধরন খানিকটা ঝুঁকিপূর্ণই বলা চলে। প্রচলিত ‘আমি-তুমি’ ধরনের গান নয়। কিছু গান আছে প্রথম শোনাতেই ভালো লেগে যায়, আমাদের গান তেমনটাও নয়। তবে যাদের ভালো লাগে, সারা জীবনের জন্যই ভালো লাগে।” আর ‘গোলাপের কাঁটা’ নাকি আরো ভিন্ন ধাঁচের, ‘এমনকি চিরকুটের জন্যও এই গানটা নতুন এক অভিজ্ঞতা। আমাদের নিয়মিত গানগুলোর থেকে এটা একদমই ভিন্ন।’

প্রস্তুত রয়েছে ‘চিরকুট’-এর আরো দুটি গান। তার একটি দেশাত্মবোধক। সেটি এ মাসেই প্রকাশ করবেন বলে জানালেন সুমি। বলেন, “এটাই হতে যাচ্ছে আমাদের প্রথম মৌলিক দেশাত্মবোধক গান। তবে গত এক যুগেরও বেশি সময় ধরে আমরা যেকোনো পারফরমেন্স শুরু করি দ্বিজেন্দ্রলাল রায়ের ‘ধনধান্য পুষ্পে ভরা’ গেয়ে। তা ছাড়া দেশ পরিষ্কার করা, তারুণ্য ইত্যাদি নিয়েও বিভিন্ন সময় গেয়েছি। সেগুলোও কিন্তু এক অর্থে দেশের গানই। তবে প্রথাগত অর্থে দেশাত্মবোধক গান এটাই প্রথম।”

অন্য গানটি অবশ্য এ মাসে নয়, প্রকাশ করবেন আরো পরে। পাশাপাশি আগামী ৩-৪ মাস তাঁরা ব্যস্ত থাকবেন কনসার্ট নিয়ে। এই মাসেই আছে ৬-৭টা কনসার্ট। গাইবেন রাজশাহী কলেজ [পুনর্মিলনী], টাঙ্গাইলের বিন্দুবাসিনী কলেজ [পুনর্মিলনী], ময়মনসিংহ কমিউনিটি বেজড মেডিক্যালসহ বিভিন্ন স্থানে।

চিরকুটের লাইনআপ : শারমিন সুলতানা সুমি [ভোকাল], ইমন চৌধুরী [লিড গিটার, ব্যাঞ্জো, ম্যান্ডোলিন], দিদার হাসান [বেজ গিটার], জাহিদ নিরব [কি-বোর্ড, হারমোনিয়াম] ও পাভেল অরিন [ড্রামস]।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা