kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

আবার জুমানজি

২০১৭ সালে মুক্তির পর অনেকটা অপ্রত্যাশিতভাবেই বিলিয়ন ডলার ব্যবসা করেছিল ‘জুমানজি—ওয়েলকাম টু দ্য জাঙ্গল’। ঠিক দুই বছর পর আসছে ছবিটির নতুন কিস্তি ‘জুমানজি—দ্য নেক্সট লেভেল’। আগামীকাল মুক্তি পেতে যাওয়া ছবিটি নিয়ে লিখেছেন হাসনাইন মাহমুদ

১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আবার জুমানজি

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে মুক্তি পায় ‘জুমানজি—ওয়েলকাম টু দ্য জাঙ্গল’। নব্বইয়ের দশকের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র ‘জুমানজি’র সিক্যুয়াল হলেও দর্শকদের তেমন আগ্রহ ছিল না ছবিটি নিয়ে। অনেক বোদ্ধা ধরেই নিয়েছিলেন, একই সময়ে মুক্তি পাওয়া ‘স্টার ওয়ারস’-এর অষ্টম কিস্তির কাছে স্রেফ উড়ে যাবে ‘জুমানজি’। তবে বোদ্ধাদের অবাক করে চলচ্চিত্রটি বক্স অফিস থেকে আয় করে প্রায় এক বিলিয়ন ডলার! প্রশংসিত হয় সমালোচকদের কাছেও। আবারও পরিচালক জ্যাক কাসদান নিয়ে আসছেন জুমানজিকে। ‘জুমানজি—দ্য নেক্সট লেভেল’ মুক্তি পাচ্ছে আগামীকাল।

এবার দেখা যাবে প্রধান চরিত্র স্পেন্সার বন্ধুদের অগোচরেই ভিডিও গেমটির ভাঙা টুকরাগুলো রেখে দেয় নিজের কাছে। দাদার বাড়ির বেইসমেন্টে বসে ঠিকও করে ফেলে গেমটি। বন্ধুরা যখন এসে আবিষ্কার করে স্পেন্সার হারিয়ে গেছে জুমানজি গেমের জগতে, তখন তারাও প্রবেশ করে গেমে। তবে দুর্ঘটনাবশত এবার তাদের সঙ্গেই গেমে প্রবেশ করে স্পেন্সারের দাদা এডি এবং তাঁর বন্ধু মাইলো। গেমের বিভিন্ন চরিত্রে প্রবেশ করে তারা স্পেন্সারকে রক্ষার মিশনে ঝাঁপিয়ে পড়ে। ভয়ংকর সব প্রতিঘাত মোকাবেলা করে তাদের সত্যিকারের জীবনে ফেরত আসার গল্পই ফুটে উঠেছে এ চলচ্চিত্রে। বিভিন্ন চরিত্রে দেখা যাবে ডোয়াইন জনসন, কেভিন হার্ট, ক্যারেন গিলান, ড্যানি ডিভিটোকে।

‘জুমানজি’কে পুনরায় জীবনদান করার সময় জ্যাক কাসদান মূল চলচ্চিত্রটির অ্যাডভেঞ্চার ধাঁচের সঙ্গে মিশিয়েছেন কমেডির মসলা। তরুণ প্রজন্মের দর্শকদের ছবিটি পছন্দ করার এটা বড় কারণ। পূর্ববর্তী চলচ্চিত্রটি মুক্তির আগে কোনো সিক্যুয়াল নির্মাণের পরিকল্পনাই ছিল না কারো। কিন্তু অভাবনীয় সাফল্য পাওয়ায় সিদ্ধান্ত বদলায় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সনি। এবারের কিস্তিটি মুক্তি দিতে মাত্র দুই বছর সময় নিয়েছেন নির্মাতারা। এমনকি চলচ্চিত্রটির প্রায় ৮০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে এ বছরই!

রেসলার থেকে অভিনেতা বনে যাওয়া ডোয়াইন জনসন বর্তমানে হলিউডের অন্যতম সফল অভিনেতা। এ বছরই জনসনের ‘হবস অ্যান্ড শ’ বক্স অফিসে বাজিমাত করেছে। তবে ‘জুমানজি’ সিরিজের আবেদন অভিনেতার কাছে অন্য রকম। এ সিরিজ করতে গিয়ে অভিনেতাদের সঙ্গে তাঁর অপূর্ব বন্ধন তৈরি হয়েছে। চলচ্চিত্রটি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘চিত্রনাট্য দেখেই আমি বুঝে গিয়েছিলাম অসাধারণ কিছু আসছে দর্শকদের জন্য। আমাদের নিজেদের মধ্যে রসায়নটা এবার আরো জমবে। শুটিংয়ে গিয়ে সেটাই হয়েছে।’

মুক্তির আগে চলচ্চিত্রটির প্রচারণার জন্যও পুরো পৃথিবী চষে বেড়াচ্ছেন তারকারা। তবে এ ব্যস্ততার মধ্যেও চলচ্চিত্রটির মূল উপজীব্য যে ‘আনন্দ’ সেটা করতে ভুলছেন না পাত্র-পাত্রীরা। এই যেমন মেক্সিকোতে প্রচারণার সময় তো ডোয়াইন জনসন ও ড্যানি ডিভিটো বিনা দাওয়াতেই হাজির হন এক বিয়েতে। বলাই বাহুল্য, অপ্রত্যাশিত অতিথিদের পেয়ে বিয়ের আসরটাও জমে উঠেছিল বেশ। জনসন বলেন, ‘প্রচারণার সময়ও আমরা শুটিংয়ের মেজাজে ছিলাম। ছবির ঘোর থেকে তখনো বের হতে পারিনি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা