kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

ফেসবুক থেকে

২৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফেসবুক থেকে

থেলমা

থেলমা [২০১৭]

ড্রামা, থ্রিলার

নরওয়ে

 

►   ধর্মীয় অনুশাসনের মধ্যে বেড়ে ওঠা থেলমা কলেজজীবনে পা রাখতে অসলোতে পাড়ি জমাল। শুরুটা ঠিকঠাকমতোই হয়েছিল, কিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতেই একদিন লাইব্রেরিতে স্টাডি করতে গিয়ে কথা নেই বার্তা নেই ওর ভয়ংকর সিজ্যর অ্যাটাক হয়ে বসল; মৃগী রোগের মতো সারা শরীরে খিঁচুনি যাকে বলে। বেশ কিছুক্ষণ থাকল, তারপর আবার সব স্বাভাবিক। দিনে দিনে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন পরিস্থিতিতে সমস্যাটা দেখতে দেখতে যেন নিয়মিত হয়ে দাঁড়াল। পাখিদের সজোরে তেড়ে এসে জানালায় বাড়ি খাওয়া কিংবা থিয়েটারের বিশাল ঝাড়বাতিসহ ছাদ ভেঙে পড়ার উপক্রম...এমন বেশ কিছু অস্বাভাবিক ব্যাপারস্যাপারও ঘটতে লাগল প্রতিবার অ্যাটাকের সময়। ডাক্তার দেখাল থেলমা, জানল এগুলো নরমাল সিজ্যর অ্যাটাক বা এক্লিপস জাতীয় কিছু না, স্ট্রেসজনিত কোনো ডিসঅর্ডার হতে পারে। থেলমার কাছে ক্লিয়ার না, এসবের পেছনে সম্প্রতি ওর নতুন বান্ধবীর সঙ্গে রোমান্টিক ইনভলভমেন্টের ব্যাপারটাও একমাত্র কারণ কি না। ধীরে ধীরে উপলব্ধি হলো থেলমার নিজের ভেতরের এক ভয়ংকর-অস্বাভাবিক ক্ষমতার! ওর মা-বাবাও কিছু লুকাচ্ছে না তো? এমন অসংখ্য প্রশ্নের উত্তর কি আসলেই লুকিয়ে আছে ওদের পরিবারেরই কোনো গোপন অতীতে?

     তাই ওর প্রিয় বান্ধবীই যখন একদিন গায়েব হয়ে গেল ‘জানালার কাচে’(!) তখন থেলমাও নতুন করে মুখোমুখি হলো ওর মা-বাবার...

     নিজের ভেতরে লুকায়িত ভয়ংকর এক সুপারপাওয়ারের সঙ্গে প্রেম আর পরিবারের আপসের গল্প নিয়েই এই নরওয়েজিয়ান সুপারন্যাচারাল থ্রিলার।

     কিছুটা ধীরগতির বা আর্ট ফিল্মের অ্যাপ্রোচে করা চমৎকার এই থ্রিলার শেষে গিয়ে দু-একটা ব্যাপার রহস্যময় বা অমীমাংসিত থাকলেও থেলমাকে একদিক দিয়ে কোনো এক্স-মেন স্পিন অফ টাইপ মুভি বললেও মনে হয় না খুব বেশি ভুল বলা হবে।

 

সানজিদ পারভেজ

সিনেমাখোর গ্রুপের পোস্ট

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা