kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

অন্য রকম ফেরা

মাঝে যৌন হয়রানির অভিযোগ নিয়ে দীর্ঘদিন শিরোনামে ছিলেন। গান নিয়ে কথাবার্তা তেমন ছিল না। অবশেষে নতুন অ্যালবাম নিয়ে আসছেন আমেরিকান গায়িকা কেশা। তাঁকে নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

২৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অন্য রকম ফেরা

বছর দশেক আগে ২০০৯ সালে কেশার ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল এক মাতাল হাওয়ার মতোই। অভিষেক সিঙ্গেল ‘টিক টক’ দিয়েই যেন উড়িয়ে দিয়েছিলেন সব কিছু। প্রথম অ্যালবাম ‘এনিম্যাল’-এর গানটির জন্য কেশাকে তুলনা করা হয়েছিল লেগি গাগার সঙ্গে। প্রথম সপ্তাহেই সিঙ্গেলটি ডাউনলোড হয়েছিল ছয় লাখ ৮০ হাজার কপি! যা গায়িকা হিসেবে ডিজিটাল বিক্রির একটা রেকর্ডও বটে। যদিও রেকর্ডটি পরে ভেঙে যায়। ২০০৯ সালে বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি বিক্রীত সিঙ্গেলও ছিল এটি। বিলবোর্ড হট হানড্রেডে গানটি টানা ৯ সপ্তাহ শীর্ষে ছিল। ২০১৯ সালে এসে হিসাব করলে দেখা যাবে, এ পর্যন্ত দুই কোটি ৫০ লাখ কপি বিক্রি হয়েছে। এমন চমক-জাগানিয়া শুরুর পর প্রথম অ্যালবাম ‘এনিম্যাল’ও স্বভাবতই হিট হয়। প্রকাশের পর থেকেই বিলবোর্ড হট ২০০-র শীর্ষে ছিল। তবে ‘টিক টক’ ছাড়া অন্য গানগুলো নিয়ে সমালোচকদের যতটা প্রত্যাশা ছিল সেটা পূরণ হয়নি।

১০ বছরের ক্যারিয়ারে নানা উত্থান পতন দেখেছেন কেশা। যাকে জীবনের সবচেয়ে ‘বড় শিক্ষা’ বলে অভিহিত করেছেন তিনি।

দ্বিতীয় অ্যালবাম ‘ওরিয়র’ প্রকাশ পায় ২০১২ সালে। মূলত রক ঘরানার গান ছিল এতে। তবে পুরো অ্যালবাম ততটা শ্রোতাপ্রিয়তা পায়নি। একমাত্র অ্যালবামের সিঙ্গেল ‘ডাই ইয়ং’ সুপারহিট হয়। এই অ্যালবাম প্রকাশের দুই বছর পরই কেশার জীবনে অন্য ঝড়ের শুরু। আগের দুই অ্যালবামের প্রযোজক ডক্টর লুকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি, শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ আনেন। ২০১৪ সালে শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে ভর্তি হন পুনর্বাসন কেন্দ্রে, আদালতে চলে মামলা। ফলে আগের মতো ট্যুরও করতে পারেননি। সব মিলিয়ে কেশার পুরো ক্যারিয়ারই পড়েছিল হুমকির মুখে। সেখান থেকে বেরিয়ে দ্রুত তৃতীয় অ্যালবামের কাজ করেন। ২০১৭ সালে প্রকাশ পাওয়া সেই অ্যালবাম ‘রেইনবো’ যেন তাঁর ব্যক্তিগত জীবনেরই প্রতিচ্ছবি। গানের কথার বিষয়বস্তু মূলত মোটা দাগে নারীর ক্ষমতায়ন ও অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা। অনেকেই এটিকে গায়িকার ‘নারীবাদী’ অ্যালবাম বলে অ্যাখ্যা দেয়। নিরীক্ষাধর্মী এই অ্যালবামে পপ রক, কান্ট্রি রকসহ নানা ধরনের গান করেন। সমালোচকদের প্রশংসার সঙ্গে অ্যালবামটি ব্যাবসায়িক সাফল্যও পায়। বিলবোর্ড হট-২০০-এ এটি শীর্ষে ছিল প্রকাশের পর থেকেই।

দিন দুই আগে কেশা ইঙ্গিত দিয়েছেন ‘হাই রোড’ নামের নতুন একটি মিউজিক ভিডিও প্রকাশের। মনে করা হচ্ছে, এ বছরের শেষে বা আগামী বছরের শুরুতে তাঁর নতুন অ্যালবাম আসবে। ১০ বছরের ক্যারিয়ারে নানা উত্থান-পতন দেখেছেন কেশা। যাকে জীবনের সবচেয়ে ‘বড় শিক্ষা’ বলে অভিহিত করেছেন তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা