kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

অন্য প্রেমের গল্প

চার বছর পর প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বলিউড ছবি মুক্তি পাচ্ছে। দীর্ঘ বিরতির পর প্রিয়াঙ্কার উপস্থিতি, আবেগময় গল্প, চলচ্চিত্র উৎসবে সমালোচকদের প্রশংসা—সব মিলিয়ে দ্য স্কাই ইজ পিংক নিয়ে দর্শকদের আগ্রহের শেষ নেই। আগামীকাল মুক্তির আগে ছবিটি নিয়ে লিখেছেন খালিদ জামিল

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অন্য প্রেমের গল্প

এমন ব্যস্ত সময় আগে কবে পার করেছেন সেটা হয়তো প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার নিজেরও জানা নেই। সংবাদ সম্মেলন, টিভি রিয়ালিটি শো, অনলাইন চ্যাট শো—কোথায় নেই তিনি! আর অভিনেত্রীকে নিয়ে এত মাতামাতি হবেই না বা কেন, পাক্কা চার বছর পর বলিউডে ফিরছেন তিনি। ২০১৬ সালে ‘জয় গঙ্গাজল’-এর পর হলিউডে কাজ করলেও আর হিন্দি ছবি করা হয়নি। এর মধ্যে ঘটে গেছে আরো অনেক কিছুই। সবচেয়ে বড় ঘটনা নিক জোনাসের সঙ্গে বিয়ে। ‘দ্য স্কাই ইজ পিংক’ বিয়ের পর প্রিয়াঙ্কার প্রথম ছবি। বিয়ের মাত্র চার দিন আগে এই ছবির শুটিং শেষ করেন অভিনেত্রী। তবে এই ছবি নিয়ে প্রিয়াঙ্কার ব্যস্ততার আরেকটি বড় কারণ, ছবির অন্যতম প্রযোজকও তিনি। ছবিটি ঠিকঠাক যাতে মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারে, সেদিকেও খেয়াল রাখতে হচ্ছে তাঁকে। আগে প্রযোজনা করলেও বড় স্কেলের বলিউড ছবির প্রযোজনায় প্রিয়াঙ্কা এই প্রথম। তাই দায়িত্বও একটু বেশি। আরেক ঝামেলা, ছবির অন্যতম অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিম সিনেমা থেকে অবসর নিয়েছেন। তাই প্রচার-প্রচারণায় তিনি থাকছেন না। ফলে প্রিয়াঙ্কাকে আরো বেশি সময় দিতে হচ্ছে। সব মিলিয়ে ‘দ্য স্কাই ইজ পিংক’ অভিনেত্রীর জন্য বিশেষ অভিজ্ঞতা। প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘বিয়ের ঠিক আগে এই ছবির কাজ করেছি। কী যে উত্তেজনা! প্রযোজনার সঙ্গে ছবির অন্যতম প্রধান চরিত্রে অভিনয়, সঙ্গে জীবনের সবচেয়ে বড় ঘটনার প্রস্তুতি—সব মিলিয়ে অদ্ভুত এক সময় পার করেছি। এই ছবির কথা কখনো ভোলা সম্ভব নয়।’ প্রিয়াঙ্কা ছাড়া ছবির আরেক আকর্ষণ ফারহান আকতার। ট্রেলারে প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে তাঁর রসায়ন সাড়া ফেলেছে দর্শকদের মধ্যে। ফারহানের সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার দ্বিতীয় কাজ এটা। আগে ‘দিল ধড়কনে  দো’তে দেখা গেছে তাঁদের।

‘দ্য স্কাই ইজ পিংক’ সত্যি ঘটনা অবলম্বনে। ছবির পরিচালক ‘মার্গারিটা উইথ আ স্ট্র’ খ্যাত সোনালি বোস। ছবিটি মূলত এক দম্পতির গল্প, যাদের মেয়ে প্রাণঘাতী রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে। মেয়ের সঙ্গে সেই লড়াইয়ে শামিল হয় মা-বাবাও। মুম্বাইয়ের কিশোরী মোটিভেশনাল স্পিকার আয়েশা চৌধুরীর জীবনের গল্প নিয়ে এই ছবি। আয়েশা ২০১৫ সালে পালমোনারি ফ্যাবরোসিসে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তবে পরিচালক সোনালির জীবনেও এমন অকালপ্রয়াণের ঘটনা আছে। তাঁর ছেলে ঈশান ২০১০ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারায়। সোনালি বলেন, ‘সন্তান হারানোর কষ্টটা বুঝি, একজন পরিচালক হিসেবে সেটা ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি। আয়েশার মা-বাবাকেও খুব কাছ থেকে চিনি। তাদের দেখেছি কিভাবে সন্তানের জীবনের শেষ দিনগুলোতে পাশে থেকেছে।’ এই আয়েশার চরিত্রেই অভিনয় করেছেন ‘সিক্রেট সুপারস্টার’ তারকা জায়রা। প্লটটা আয়েশার অসুস্থতাকে ঘিরে গড়ে উঠলেও গল্পটা মূলত তার মা-বাবার। আয়েশার যুদ্ধটা হয়তো শেষ হয় তার মৃত্যু দিয়ে। কিন্তু তার মা-বাবার যুদ্ধটা চলতেই থাকে। এমন আবেগময় ছবির চিত্রনাট্য পড়ে স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা, ‘শুরুতে পড়ার পর আমি অনেকক্ষণ কোনো কাজ করতে পারিনি। অন্য একটা ঘোরের মধ্যে ডুবে গিয়েছিলাম। কেন জানি মনে হয়েছিল, এটা আমার মা-বাবার গল্প। এটা আসলে সব মা-বাবারই গল্প।’

টরন্টো চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শনের পর সমালোচকদের ব্যাপক প্রশংসা পেয়েছে ছবিটি। প্রিয়াঙ্কা, তাঁর স্বামী নিক জোনাস তো চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি।

‘দ্য স্কাই ইজ পিংক’ ছবির দৃশ্য ধারণ করা হয়েছে মুম্বাই, দিল্লি, আন্দামান ও লন্ডনে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা