kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

থ্রিলারেই মুক্তি

হিট হওয়ায় ওপার বাংলায় একের পর এক তৈরি হচ্ছে থ্রিলার। সাহিত্যনির্ভর ছবির সঙ্গে নির্মিত হচ্ছে মৌলিক থ্রিলার ছবিও। থ্রিলারনির্ভরতা নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



থ্রিলারেই মুক্তি

গোয়েন্দা জুনিয়র

একের পর এক ছবি ফ্লপ হওয়ায় ‘ব্যোমকেশ’ নিয়ে ছবি তৈরি শুরু করেছিলেন অঞ্জন দত্ত। ব্যস, সেই যে ছবি হিট হলো, আর পেছনে তাকাতে হয়নি। নিশ্চিত হিট জেনে এরপর ‘ব্যোমকেশ’ তৈরি করেছেন অরিন্দম শীল। টিভি আর ওয়েবেও হয়েছে ‘ব্যোমকেশ’। এরপর শবর দাশগুপ্ত, কিরীটী হয়েছে, পূজায় আসছে মিতিন মাসি। গোয়েন্দার বাইরে প্রচুর থ্রিলার হয়েছে। কারণ ওই একই—নিশ্চিত হিট। গেল পাঁচ বছরের পরিসংখ্যান বলছে, প্রায় সব থ্রিলারই মোটামুটি চলছে। থ্রিলারে সাফল্য দেখে এমনকি মৈনাক ভৌমিকও এই ঘরানার ছবি ‘বর্ণ পরিচয়’ করেছেন, যিনি আগে রোমান্টিক ছবি করতেই অভ্যস্ত ছিলেন। ‘থ্রিলার বানানো সোজা। প্লটকে নানা দিকে ঘোরানো যায়। অপ্রত্যাশিত টুইস্ট আনা যায়। অনেক দিন ধরেই আমি থ্রিলার করতে চাইছিলাম। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানও আরো থ্রিলার চাইছে,’ বলেন পরিচালক। ‘বর্ণ পরিচয়’ বেশ ভালো চলায় ছোটদের জন্য ‘গোয়েন্দা জুনিয়র’ নিয়ে আসছেন পরিচালক, যেখানে মূল চরিত্র করেছেন ঋতব্রত মুখার্জি।

থ্রিলার ছবি তৈরির হিড়িক উঠার পর শুরুতে শুধু বাংলা সাহিত্যেই নির্ভর করেছেন পরিচালকরা। কিন্তু গেল বছর দুই হলো তৈরি হয়েছে মৌলিক থ্রিলার ও গোয়েন্দা ছবিও। বিশেষ করে সায়ন্তন ঘোষালের ‘যকের ধন’ হিট হওয়ায় দৃশ্যপট বদলে যায়। পরিচালক এর মধ্যে ছবির সিক্যুয়ালও তৈরি করেছেন। থ্রিলারে ভালো করতে দেখে একটি প্রযোজনা সংস্থা নতুন ব্যোমকেশ তৈরির দায়িত্ব দিয়েছে সায়ন্তনকেই। এ ছাড়া নতুন পরিচালক ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায় ‘সোনাদা’ সিরিজ শুরু করেছেন। আবীর চ্যাটার্জিকে নিয়ে সিরিজে দুই ছবিও হিট। গেল মাসে মুক্তি পেয়েছে প্রীতম ডি গুপ্তর ‘শান্তিলাল ও প্রজাপতি রহস্য’, যা এর মধ্যেই হিট তকমা পেয়েছে। পরিচালক বলছেন, সামনে শান্তিলালকে নিয়ে আরো ছবি করবেন তিনি। রোমান্টিক কমেডি ছবির পরিচালকদ্বয় সুদেষ্ণা রায়-অভিজিৎ গুহর প্রথম থ্রিলার ‘সামসারা’ও মুক্তি পেয়েছে কিছুদিন আগে। সুদেষ্ণা বলেন, ‘থ্রিলার যে বক্স অফিসে ভালো চলছে, সেটা তো সবাই দেখতে পাচ্ছে। নতুন পরিচালকদের থ্রিলারও দর্শক টেনেছে। যে কারণেই হোক, দর্শক রোমান্স বা দক্ষিণী রিমেক ছবি দেখতে চাইছে না।’

নারায়ণ সান্যালের ‘কাঁটায় কাঁটায়’ সিরিজ অবলম্বনে ছবি তৈরি করেছেন হরনাথ চক্রবর্তী। সেটা এখনো মুক্তি পায়নি। পরিচালক অবশ্য বলছেন, হালের হাওয়া দেখে নয়, তিনি অনেক আগে থেকেই এ ছবি করতে চেয়েছেন, ‘ট্রেন্ড ভেবে ছবিটা বানাইনি। আমার থ্রিলার ফেলুদা-ব্যোমকেশ ধরনেরও নয়। অন্য কনসেপ্ট। তবে মনে করি, সবাই লাইন দিয়ে থ্রিলার বানালে দর্শক আর দেখবে না।’

আরেক নতুন পরিচালক সৌকর্য ঘোষালও থ্রিলার বানাচ্ছেন। তাঁর ‘রক্ত রহস্য’ মুক্তি পাবে সামনেই। পরিচালক মনে করেন, থ্রিলারে একটা টান টান ব্যাপার থাকে, যা মানুষ পছন্দ করে। তাঁর মতে, শুধু বাংলার নয়, সারা দুনিয়ার মানুষ থ্রিলার পছন্দ করে। এ জন্য স্ট্রিমিং সাইটগুলোতেও থ্রিলারই বেশি দেখা যায়।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা