kalerkantho

সর্বোচ্চ আয়ের পাঁচ ট্যুর

৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সর্বোচ্চ আয়ের পাঁচ ট্যুর

ট্যুর বা কনসার্ট থেকে সবচেয়ে বেশি আয় করা শিল্পী এখন এড শিরান। দিন কয়েক আগেই তিনি ভেঙেছেন ‘ইউটু’র রেকর্ড। সবচেয়ে বেশি আয় করা পাঁচ ট্যুর নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

 

এড শিরান

ক্যারিয়ারের বয়স খুব বেশি নয়। মাত্র বছর কয়েক হয় তাঁকে চিনেছে মানুষ। কিন্তু এর মধ্যেই নতুন রেকর্ড গড়ছেন এড শিরান। সর্বকালের সবচেয়ে বেশি আয় করা ট্যুরের মালিক এখন এই ব্রিটিশ শিল্পী। শিরান এখন আছেন তাঁর বিখ্যাত ‘ডিভাইড’ ট্যুরে। গেল সপ্তাহেই তিনি অংশ নিয়েছেন জার্মানির হ্যানোভারের এক কনসার্টে। সেখানেই তিনি অতিক্রম করেছেন আগের ‘ইউটু’র রেকর্ডটি। আড়াই বছর ধরে চলা ট্যুরটি দিয়ে শিরান এ পর্যন্ত আয় করেছেন ৭৪ কোটি ডলার। দীর্ঘ এই ট্যুরের আরো ১২টি কনসার্ট বাকি আছে। সব শেষ হলে নিশ্চয় আয় আরো বাড়বে। কনসার্টের দর্শকসংখ্যায় সবাইকে আগেই পেছনে ফেলেছেন গায়ক। ৪৩ দেশে হওয়া তাঁর কনসার্ট দেখেছে ৮৫ লাখের বেশি মানুষ! সারা দুনিয়ায় ভক্তদের এমন সাড়া পেয়ে স্বভাবতই আপ্লুত শিরান, ‘যাঁরা আমার শোতে এসেছেন, সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ। এখনো ১২টি বাকি আছে। আমি এই অভিজ্ঞতা কখনো ভুলব না।’

 

ইউটু

বিখ্যাত আইরিশ রক ব্যান্ড ‘ইউটু’র ‘৩৬০ ডিগ্রি’ ট্যুরটা হয় ২০০৯ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত। মোটমাট ১১০ শো হয় ট্যুরটির। শুরু হয় স্পেনের বার্সেলোনা থেকে, শেষটা কানাডার মঙ্কটনে। ৭৩ কোটি ৬০ লাখ ডলার আয় নিয়ে এড শিরানের আগে এটাই ছিল সর্বোচ্চ আয় করা ট্যুর। ঐতিহাসিক এই ট্যুরে মোট দর্শকসংখ্যা ছিল ৭৩ লাখ।

 

গানস এন রোজেজ

মার্কিন হার্ড রক ব্যান্ড ‘গানস অ্যান্ড রোজেজ’-এর কনসার্টটি শুরু হয় ২০১৬ সালের ১ এপ্রিল। শেষ হবে এ বছরের ২ নভেম্বর। ‘নট ইন দিস লাইফটাইম...’ শিরোনামের ট্যুরটি থেকে এ পর্যন্ত আয় হয়েছে ৫৬ কোটি ডলার। ২০১৬ সালে এটা শহর হিসেবে বছরের সর্বোচ্চ আয় করা ট্যুর ছিল। ২০১৭ সালে ব্যাপক জনপ্রিয় ট্যুরটিকে ‘টুরিং অ্যাওয়ার্ড’ দেয় বিলবোর্ড। ওয়েস্ট হলিউড দিয়ে শুরু করা ট্যুরটি শেষ হবে লাস ভেগাসে।

 

দ্য রোলিং স্টোনস

সবচেয়ে বেশি আয় করা ট্যুরের চতুর্থ স্থানে আছে ‘আ বিগার ব্যাং’। ইংলিশ রক ব্যান্ড ‘দ্য রোলিং স্টোনস’-এর এই ট্যুর চলে ২০০৫ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত। আয় হয় ৫৫ কোটি ডলার। কানাডার টরন্টো থেকে শুরু হয়ে ট্যুরটি শেষ হয় লন্ডনে। ট্যুরের শেষ সপ্তাহে লন্ডনে টানা তিন শো হয়েছিল।

 

কোল্ড প্লে

রেকর্ডের পঞ্চম স্থানটিও একটি ব্রিটিশ ব্যান্ডের। কোল্ড প্লের ‘আ হেড ফুল অব ড্রিমস ট্যুর’-এর আয় ৫২ কোটি ডলার। লাতিন আমেরিকা, ইউরোপ, উত্তর আমেরিকা, এশিয়াজুড়ে ১২২টি ট্যুর হয় শোটির। ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ প্রথম শো হয় আর্জেন্টিনার লা প্লাতায়। শেষটাও একই জায়গায় ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর।

 

মন্তব্য