kalerkantho

সোমবার । ২৬ আগস্ট ২০১৯। ১১ ভাদ্র ১৪২৬। ২৪ জিলহজ ১৪৪০

বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হবে!

যুক্তরাজ্যে আজ থেকে শুরু হয়েছে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আসর। র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ ১০ দল একে অপরের বিপক্ষে লড়বে। এবারের আসরে বাংলাদেশ কতদূর যাবে বলে মনে করছেন তারকারা? জেনেছেন ইসমাত মুমু

৩০ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হবে!

আমাদের টিমটা সবচেয়ে গোছানো

অমিতাভ রেজা

বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হবে। এ ছাড়া অন্য কিছু ভাবতে পারছি না। আমি মনে করি, বাংলাদেশের সেই যোগ্যতা আছে। আগে হলে কথাটা বলতাম না। বলতাম, প্রত্যাশা করি বাংলাদেশ ভালো করবে। কিন্তু এখন চ্যাম্পিয়ন হওয়ার প্রত্যাশা আমরা করতেই পারি। আমাদের কী নেই? আমাদের সাকিব আল হাসান আছে, বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। আমাদের মাশরাফি আছে, বিশ্বকাপের সবচেয়ে অভিজ্ঞ অধিনায়ক। আমাদের টিমটা সবচেয়ে গোছানো। বাংলাদেশ সেমিফাইনালে ভারতকে হারিয়ে ফাইনালে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বলে প্রেডিকশন করছি। যদিও এবার বিশ্বকাপের খুব বেশি ম্যাচ দেখতে পারব না, কারণ আমার সিনেমার শুটিং আছে। তবে যেখানেই থাকি খেলার খোঁজ রাখব। বাংলাদেশের খেলা মিস করব না আশা রাখি।

 

২৭৫ করেও জেতা সম্ভব

ইরেশ যাকের

একটা বিষয় নিয়ে একটু চিন্তিত হয়ে পড়েছি। এটা বলা একটা ধৃষ্টতাও। মাশরাফি বললেন, এই বিশ্বকাপে ৩০০-৩২৫ না করলে জেতা কঠিন হবে। সম্প্রতি পাকিস্তান-ইংল্যান্ড সিরিজটার পর অনেকেই এটা বলাবলি করছে। এই সিরিজে দেখেছি, হয় ইংল্যান্ড নিজেরা ৩০০ করেছে না হয় পাকিস্তান সাড়ে তিন শ করলে সেটা সহজে চেজ করেছে। হয়তো এ কারণেই আমাদের দলেরও মনে হচ্ছে সোয়া তিন শ না করলে জেতা সম্ভব নয়। বিশ্বকাপ তো একটা প্রেসার সিচুয়েশন। নরমাল একটা সিরিজে যেটা আপনি ধরে নেবেন বেঞ্চ মার্ক। বিশ্বকাপে তার চেয়ে ৩০ রান কম হলেও জেতা সম্ভব বলে আমার বিশ্বাস। ফ্ল্যাট ইউকেটে পার স্কোর হচ্ছে জেতার জন্য ৩০০ থেকে ৩২৫। সেই জায়গায় বিশ্বকাপ সিচুয়েশনে ২৭৫ করেও জেতা সম্ভব। বাংলাদেশ দল তাতেও চ্যালেঞ্জ নিতে পারে বলে মনে করি। আমরা যদি মনে করি অন্য টিমকে ২০০-তে বুক করে দেব, সেটাও পারব না। আমাদের ম্যাচ উইনিং, উইকেট টেকিং বোলার সেভাবে নেই। আমাদের যারা বেস্ট বোলার তারা কিন্তু উইকেট টেকার বোলার না, ওরা রেস্ট্রিকটেড বোলার। রান রেটটাকে কন্ট্রোল করে ব্যাটসম্যানকে ফ্রাস্টেটেড করে উইকেট নেয়। সেখানে আমাদের মাথায় রাখতে হবে ২৭৫, এই অপজিশনকে আটকাতে যেন পারি। তাহলে আমাদের জেতার সম্ভাবনা আছে।

 

বাংলাদেশ সেমিফাইনাল খেলবে

জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়া

এবারের বিশ্বকাপ মাঠ থেকে সরাসরি উপস্থাপনা করব। গাজী টিভির হয়ে সরাসরি মাঠে থেকে খেলার নানা বিশ্লেষণ তুলে ধরব। অলরেডি যুক্তরাজ্যে চলে এসেছি। আর বাংলাদেশ নিয়ে প্রত্যাশা তো আকাশচুম্বী। বাংলাদেশ এখন ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলছে। বিশেষ করে লাস্ট যে ট্রফিটা জিতল, সেটা আত্মবিশ্বাস আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। আর এখানে যারা বিশ্বকাপ খেলছে, তাদের মধ্যে কিছু টিম ছাড়া প্রায় সবাই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করবে। ট্রাই নেশনে যেভাবে বাংলাদেশ ব্যাট করতে নেমে টার্গেটে পৌঁছে গেল, সেটা দেখে আশা করতেই পারি বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হবে। যদি আমি নিরপেক্ষভাবে বলি, বাংলাদেশ সেমিফাইনাল খেলার যোগ্যতা রাখে। বাংলাদেশের দিন খারাপ হলে তো কিছু করার নেই। আমার মতে, এবার ইংল্যান্ড ও ভারতের খুব সম্ভাবনা ফাইনালে খেলার। বিগত দিনে তাদের পারফরম্যান্স সেটাই বলে। বিশেষ করে ইংল্যান্ডকে এগিয়ে রাখব, খেলাটা হবে তাদের মাঠে। এই বিশ্বকাপে বোলারদের খুব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। আমাদের অনেক ব্যাটসম্যান আছে ভালো। কিন্তু আমাদের এক সাকিব ছাড়া দক্ষ স্পিনার নেই, যেটা বিশ্বকাপে খুব দরকার। মিরাজ ভালো বোলার। তবে অভিজ্ঞ নন। বোলারদের রান চেপে রাখার দিকে নজর দিতে হবে, কারণ প্রচুর রান হবে এবার।

 

এবার মাশরাফি বিন মর্তুজার শেষ বিশ্বকাপ

মারিয়া নূর

বাংলাদেশ দলে কিন্তু সবচেয়ে বেশি বিশ্বকাপ খেলা প্লেয়ার রয়েছেন। এটা অনেক বেশি আত্মবিশ্বাস জোগাতে পারে আমাদের। আশা তো করছি অনেক দূর পর্যন্ত যাবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের ফ্যান হিসেবে সেটাই চাইব। এবার প্রতিটি দল একে অপরের বিপরীতে খেলবে। আগের মতো তিন ম্যাচের দুটিতে জিতে পরের রাউন্ডে যাওয়া সম্ভব নয়। এবার জেতা ছাড়া কোনো অপশন নেই। সেখানে হিসাব করে বাংলাদেশ কয়েকটি দলকে বলে-কয়ে হারাতে পারে বলে মনে করি। এবার মাশরাফি বিন মর্তুজার শেষ বিশ্বকাপ। তিনি জীবনে অনেক কিছু পেয়েছেন। তাঁর ভাগ্যটাও এই বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে অনেক বেশি সম্ভাবনা দেখায় বলে মনে করি। তাঁর সতীর্থদেরও এটা বড় চ্যালেঞ্জ। মাশরাফি যেন এই বিশ্বকাপে বড় কোনো উপহার পান।

মন্তব্য