kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

ভূত চতুর্দশী

১৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভূত চতুর্দশী

টিন হরর অ্যাডভেঞ্চার ‘ভূত চতুর্দশী’। আগামীকাল মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ছবিটি নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

বন্ধুরা মিলে ছুটি কাটাতে গেছে। এরপর পড়েছে অতৃপ্ত আত্মার খপ্পরে—এই ধরনের গল্প নিয়ে সারা দুনিয়ায় কত যে ছবি হয়েছে ঠিক নেই। তবে বাংলায় টিন হরর অ্যাডভেঞ্চার বেশি হয়নি। তাই মৈনাক ভৌমিকের চিত্রনাট্যে ‘ভূত চতুর্দশী’র ট্রেলার মুক্তির পর তরুণরা ভালোই পছন্দ করেছে। সাধারণত দীপান্বিতা অমাবস্যার আগে চতুর্দশী তিথিতে হিন্দু মতে ভূত চতুর্দশী। প্রচলিত আছে, এদিন মৃত পূর্বপুরুষরা মর্ত্যে ফিরে আসে। তাদের খুশি করতে ও অতৃপ্ত আত্মাদের অভিশাপ থেকে বাঁচতে এদিন নানা আচার পালন করা হয়।

ছবিটির গল্প চার বন্ধুকে নিয়ে। ভূত চতুর্দশীর ওপর তথ্যচিত্র বানাতে যারা বোলপুর পাড়ি জমায়। সেখানে গিয়ে নিজেরাই পড়ে ভূতের খপ্পরে! পোড়োবাড়িতে অদ্ভুত সব কার্যকলাপের মুখোমুখি হয়।

ছবিতে প্রধান চার চরিত্রের মধ্যে চেনা মুখ ‘সন্তু’খ্যাত আরিয়ান ভৌমিক। বাকিরা হলেন এনা সাহা, দীপ্সিতা ও সৌমেন্দ্র। ভিডিও জকি হওয়ায় দীপ্সিতা কিছুটা পরিচিত। তবে উপস্থাপনা, মডেলিং ভুলে দীপ্সিতা এখন শুধু অভিনয়েই মন দিতে চান। অন্যদিকে এনা বাংলা সিনেমায় নতুন হলেও বেশ কয়েকটি দক্ষিণের ছবিতে অভিনয় করেছেন। এই ছবি দিয়ে বাংলাতেও শক্ত অবস্থান গড়তে চান তিনি। একইভাবে ছবিতে নিয়মিত হতে চান আরিয়ানও। অনেক দিন ধরে ছবি করলেও এখনো থিতু হতে পারেননি। সেটা মূলত পড়াশোনার কারণেই। এখন প্রচুর কাজ করছেন। এনার সঙ্গেই আরেকটি ছবি ‘হ্যাকার’ মুক্তি পাবে সামনেই। আছেন সোনাদা সিরিজের নতুন ছবি ‘দুর্গেশগরের গুপ্তধন’-এও।

ছবির পরিচালক শাব্বির মালিক। যিনি এত দিন মৈনাক ভৌমিকের সহকারী হিসেবে কাজ করেছেন। শাব্বির বলছেন, বাংলায় গা ছমছম ভূতের ছবি তৈরি করতে চেয়েছেন তিনি। শাব্বির সম্পর্কে মৈনাক বলেন, ‘ও হরর ঘরানা নিয়ে খুবই আগ্রহী। তাই এই আইডিয়া যখন মাথায় আসে তখন মনে হলো শাব্বিরই এটা বানানোর জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা