kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

এখনো টাবু

১৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এখনো টাবু

আশির দশকের শুরুতে ক্যারিয়ার শুরু করা অনেক অভিনেত্রী অবসরে গেলেও এখনো সমান দাপটে অভিনয় করে যাচ্ছেন টাবু। ‘দে দে পেয়ার দে’ মুক্তি উপলক্ষে তাঁকে নিয়ে লিখেছেন মামুনুর রশিদ

৩০ বছরের ক্যারিয়ারে ‘মাচিস’, ‘কালাপানি’, ‘চাঁদনি বার’, ‘মকবুল’-এর মতো  ছবি করেছেন। আবার ‘কুলি নাম্বার ওয়ান’, ‘জিত’, ‘বিবি নাম্বার ওয়ান’, ‘চাচী ৪২০’-এর মতো মসলাদার বাণিজ্যিক সিনেমাও করেছেন। ক্যারিয়ারজুড়ে অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন সমালোচকদের প্রশংসা। বক্স অফিসেও সাফল্য পেয়েছেন। দুই কুল সমানভাবে ‘রক্ষা’ করে চলা টাবুর মতো কম অভিনেত্রীই আছেন বলিউডে। ক্যারিয়ার যখন পড়তির দিকে তখন ‘হায়দায়’ দিয়ে চমকে দিয়েছিলেন। কার্যত এই ছবির পর থেকেই একেবারে বেছে বেছে ছবি করছেন। যে জন্য পরের চার বছরে করা ছয় ছবির চারটিই আলোচিত। এর মধ্যে আছে ‘দৃশ্যম’, ‘গোলমাল এগেইন’, ‘তলোয়ার’ ও ‘আন্ধাধুন’। শেষেরটি ব্যবসা করেছে তিন শ কোটি রুপির বেশি। কী এমন রহস্য যে ৪৭ বছর বয়সে এসেও সমান তালে সাফল্য পেয়ে যাচ্ছেন? ‘আমার ধৈর্য অনেক। মায়ের চরিত্র নাকি মেয়ের চরিত্র এসব নিয়ে মাথা ঘামাইনি কখনো, শুধু ভালো চরিত্র চেয়েছি। ছোট চরিত্র, বড় চরিত্র যখন যেখানে যেমন সুযোগ পেয়েছি করেছি। এটাই ক্যারিয়ারকে একটা স্থিতিশীল অবস্থা দিয়েছে,’ বলেন টাবু। ক্যারিয়ারজুড়ে নানা ধরনের চরিত্র করেছেন, সবগুলোতেই মানিয়ে গেছেন দারুণভাবে। অভিনেত্রী এটাকে দেখেন তাঁর বহির্মুখী ব্যক্তিত্বের সাফল্য হিসেবেই, ‘দেখতে গুরুগম্ভীর মনে হলেও আমি কিন্তু একেবারেই উল্টো। যেচে মানুষের সঙ্গে আলাপ করি। এ জন্য নানা পেশার নানা ধরনের মানুষের সঙ্গে পরিচয় আছে। ভিন্ন ভিন্ন চরিত্র করতে গিয়ে মানুষের সঙ্গে মেশার অভিজ্ঞতা আমাকে সাহায্য করেছে।’

যেচে মানুষের সঙ্গে আলাপ করি। এ জন্য নানা পেশার নানা ধরনের মানুষের সঙ্গে পরিচয় আছে। ভিন্ন ভিন্ন চরিত্র করতে গিয়ে মানুষের সঙ্গে মেশার অভিজ্ঞতা আমাকে সাহায্য করেছে।

টাবু অভিনীত ‘দে দে পেয়ার দে’ মুক্তি পাচ্ছে কাল। কমেডি ঘরানার এই ছবিতে তাঁর বিপরীতে আছেন অজয় দেবগণ। হালে অজয়ের সঙ্গে তাঁর জুটি ভালো জমছে। ‘দৃশ্যম’-এ ছিলেন, এখানে হয়েছেন জুটি। লাভ রঞ্জনের নতুন ছবিতেও ফের দেখা যাবে দুজনকে। অজয়ের সঙ্গে কাজ করা নিয়ে টাবু বলেন, ‘কত দিন ধরে যে ওকে চিনি! খুব ভালো বন্ধু ও। অজয়ের সঙ্গে সেটে দারুণ সময় কাটে।’ সামনে মীরা নায়ারের পরের ছবিতে কাজ করবেন অভিনেত্রী। ‘দ্য নেমসেক’-এর পর ফের মীরার সঙ্গে কাজ করা নিয়ে আনন্দিত তিনি। তবে বড় পর্দার সঙ্গে ওয়েব নিয়েও খুব আশাবাদী টাবু। তাঁর মতে, এই ঘরানায় দারুণ দারুণ কাজের সুযোগ আছে। শিগগিরই তাঁর নিজেরও অভিষেক হচ্ছে ওয়েবে।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা