kalerkantho

রবিবার। ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৭ জুন ২০২০। ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

সুপারস্টার শাকিব খান ও নুসরাত ফারিয়ার সাথে নেচেছে সারা দেশ

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সুপারস্টার শাকিব খান ও নুসরাত ফারিয়ার সাথে নেচেছে সারা দেশ

প্রচারের আগেই বাংলালিংকের নতুন এই প্রজেক্টটি মানুষের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ ও উদ্দীপনা সৃষ্টি করে। প্রচারের কিছুদিনের মধ্যে বিজ্ঞাপনটি বিপুল সাড়া ফেলে এবং দেশজুড়ে প্রশংসিত হয়। #এভরিবডি খুশি ড্যান্স মুভটি দেশের আনাচকানাচে আলোড়ন তোলে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সবাই ড্যান্স মুভটিকে একেবারে নিজেদের মতো করে উপস্থাপন করে। এ ছাড়া বাংলালিংকই প্রথম ব্র্যান্ড, যারা টিকটক-এর প্ল্যাটফর্মকে তাদের এনগেইজমেন্ট ক্যাম্পেইনের জন্য ব্যবহার করে সবাইকে অংশ নেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। শাকিব খানের নতুন লুক এবং তাঁর এমন উপস্থাপনও সবার মন কেড়ে নেয়। বিজ্ঞাপনটির জনপ্রিয়তা আরো বাড়িয়ে তুলতে ১৫ জানুয়ারি থেকে অগমেন্টেড রিয়ালিটিতে সাজানো বিটিএল কার্যক্রম শুরু হয়, যেখানে মানুষজন ড্যান্স চ্যালেঞ্জে অংশ নিয়ে দারুণ এই গল্পের অংশীদার হওয়ার সুযোগ পায়।

 

সুপারস্টার শাকিব খান ও নুসরাত ফারিয়া অভিনীত বাংলালিংক টেলিভিশন বিজ্ঞাপন এরই মধ্যে সামাজিক গণমাধ্যমে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। প্রায় ১৫ মিলিয়ন দর্শনার্থী ছাড়িয়ে গেছে। সাড়া জাগানো এই টেলিভিশন বিজ্ঞাপনের প্রশংসা এখন সর্বত্র।

প্রথমবারের মতো এআর প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে,  যেখানে সুপারস্টার শাকিব খান ও নুসরাত ফারিয়া উভয়ের সাথে নেচেছে হাজার হাজার অংশগ্রহণকারী।

ঢাকাসহ সারা দেশে বিভিন্ন ব্যস্ত স্থানগুলোতে এই নাচ প্রতিযোগিতা স্বতঃস্ফূর্তভাবে দেখেছে এবং তারা তাদের পছন্দের তারকাদের সাথে ভার্চুয়াল সেলফি নিতে পেরেছে। এবং বাংলালিংকের ফেসবুক পাতা থেকে সংগ্রহ করছে।

এ পর্যন্ত ২০ হাজারেরও বেশি প্রতিযোগী এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছে। ‘ড্যান্স অব ক্যারাভ্যান’ কার্যক্রম শেষ হয়েছে ২৬ ফেব্রুয়ারি। বিজয়ী অংশগ্রহণকারীদের জন্য রয়েছে আকর্ষণীয় পুরস্কার।

কমিউনিকেশন ইন্ডাস্ট্রিতে তারুণ্যের বৈচিত্র্যে ভরা কালারফুল ব্র্যান্ড হিসেবে বাংলালিংক সব সময়ই নিত্যনতুন ট্রেন্ড চালু করে এগিয়ে আছে। শুরু থেকেই কম্পানির মূল লক্ষ্য ছিল গ্রাহকের চাহিদা বোঝা এবং কিভাবে বাংলালিংক থেকে গ্রাহকরা বেশি বেশি পেতে পারে সে ব্যাপারে সচেষ্ট থাকা।

এ বছর বাংলালিংক প্রথমবারের মতো বড় পর্দার জনপ্রিয় দুই সুপারস্টার শাকিব খান ও নুসরাত ফারিয়াকে নিয়ে বিজ্ঞাপন নির্মাণ করে। দর্শকদের মতে, এটিই এ বছরের সবচেয়ে      গ্ল্যামারাস এবং বিশাল আয়োজনের বিজ্ঞাপন, যেখানে বেশি দিয়ে খুশি ছড়ানোর বিষয়টি ফুটে উঠেছে। আয়োজনটি বিশালতা পেয়েছে, কারণ এর পেছনে ছিলেন এই সময়ের সবচেয়ে প্রতিভাবান ও প্রতিশ্রুতিশীল নির্মাতা আদনান আল রাজিব, আন্তর্জাতিক মানের টেকনিক্যাল সেটআপ ও প্রডাকশন টিম আর বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় সব চলচ্চিত্রে কাজ করার অভিজ্ঞতাসম্পন্ন কোরিওগ্রাফার।

বিজ্ঞাপনে ব্যবহৃত মন ছুঁয়ে যাওয়া জিংগেলটি খুব কম সময়ের মধ্যেই সারা দেশে ভীষণ জনপ্রিয়তা অর্জন করে। অনেকের মতে, দেশে বিজ্ঞাপনের জন্য এত বড় আয়োজন এর আগে কখনো হয়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা