kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

গানে আছেন, লেখায়ও

শুধু সংগীত দুনিয়াতেই নয়, লেখালেখির ক্ষেত্রেও দক্ষতা দেখিয়েছেন এই সময়ের অনেক গায়ক-গায়িকা। এমন কয়েকজনকে নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গানে আছেন, লেখায়ও

টেইলর সুইফট

নিজের অনেক গানের কথা নিজেই লেখেন টেইলর সুইফট। এটা অনেকেরই জানা। তাই বলে বই? ঘটনা সত্য, টেইলর সুইফট লিখেছেন আস্ত উপন্যাস। ৩৫০ পৃষ্ঠার উপন্যাসটি অবশ্য এখনো প্রকাশিত হয়নি। শুধু এটাই নয়, গায়িকা একটি ফ্যান্টাসি সিরিজ লেখারও প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ‘আমি হ্যারি পটার সিরিজের অত্যন্ত ভক্ত, এই টাইপের কিছু একটা দ্রুতই লিখতে শুরু করব,’ বলেন গায়িকা। অনেকে তাঁর লেখার কথা শুনে অবাক হলেও সুইফট জানাচ্ছেন, ‘ছোটবেলা থেকেই আমি প্রচুর লিখতে ভালোবাসি, পড়তেও। স্কুলে থাকার সময় আমার অনেক লেখা আছে। পরে গানের ব্যস্ততায় সেভাবে সময় বের করতে পারিনি।’

 

ডেমি লোভাটো

মাদকাসক্তি, বিষণ্নতা—নানা কারণে বারবার পুনর্বাসনকেন্দ্রে কাটাতে হয়েছে ডেমি লোভাটোকে। জীবনে প্রেরণা, উৎসাহ ইত্যাদির গুরুত্ব তিনি ভালোই জানেন। তাই গায়িকা নিজেই লিখেছেন প্রেরণামূলক বই ‘স্টেয়িং স্ট্রং : ৩৬৫ ডেজ আ ইয়ার’। বইটিতে যেসব কথা থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছেন লোভাটো, সেগুলোও আছে। ‘সবাই ইতিবাচক চিন্তা করতে চায়। কিন্তু কাজটা সহজ নয়, নানা কারণে আপনি বারবার বাধা পাবেন। এমন সময়ে কারো লেখা বা কথায় আপনি ভীষণভাবে অনুপ্রাণিত হতে পারেন। আমার ক্ষেত্রেও সেটা হয়েছে। এসব চিন্তা থেকেই বই লেখা,’ বলেন তিনি।

 

কেনি ওয়েস্ট

‘থ্যাংক ইউ অ্যান্ড ইউ আর ওয়েলকাম’ নামে বই লিখেছেন কেনি ওয়েস্ট। বইতে র্যাপার মূলত জীবনদর্শন, সাফল্য পাওয়ার উপায় ইত্যাদি বিষয় নিয়ে লিখেছেন। ‘আমার বই মানুষকে প্রতিটি মুহূর্ত উদ্‌যাপন করতে শেখাবে,’ লিখেছেন তিনি। ভবিষ্যতে রাজনীতি, দর্শনের মতো আরো সিরিয়াস বিষয় নিয়ে বই লিখতে চান তিনি।

 

জাস্টিন বিবার

গায়কের আত্মজীবনীর প্রথম ধাপ ‘মাই স্টেপ ২ ফরএভার : মাই স্টোরি’। কিভাবে কানাডার অন্টারিওর এক সাধারণ বালক গানের দুনিয়ায় এলেন, সে গল্পই বইতে বলেছেন তিনি। কিছুদিন আগে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, আরো নিয়মিত লেখালেখি করতে চান তিনি।

 

জেনিফার লোপেজ

গায়িকা নিজের জীবনের নানা ঘটনা নিয়ে ‘ট্রু লাভ’ লেখেন ২০১৪ সালে। গানের মতো লেখায়ও ব্যাপক সাফল্য পান জেনিফার লোপেজ। নিউ ইয়র্ক টাইমসের করা বছরের সবচেয়ে বেশি বিক্রীত বইয়ের তালিকায় সপ্তম ছিল ‘ট্রু লাভ’। বই বিক্রির সব অর্থ নারী ও শিশু কল্যাণে ব্যয় করেছেন লোপেজ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা