kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩০ আষাঢ় ১৪২৭। ১৪ জুলাই ২০২০। ২২ জিলকদ ১৪৪১

ওহে নন্দিনী

র‌্যাম্প থেকে এলেন টিভি নাটকে। অভিনয় করেছেন বেশ কিছু জনপ্রিয় নাটকে। এবারই প্রথম অভিনয় করছেন চলচ্চিত্রে। নাজিরা আহমেদ মৌকে নিয়ে লিখেছেন হৃদয় সাহা

২৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ওহে নন্দিনী

ছবি : রাকেশ রাকিব

অভিনয়ে আসার পর থেকেই চলচ্চিত্রের প্রস্তাব পেয়ে আসছিলেন। গল্প পছন্দ হলে চরিত্র পছন্দ হয় না, চরিত্র পছন্দ হলে চিত্রনাট্য পছন্দ হয় না। তাই কোনো প্রস্তাবেই ‘হ্যাঁ’ বলেননি। অবশেষে ‘হ্যাঁ’ বলেছেন নির্মাতা সোয়াইবুর রহমান রাসেলকে। তাঁর ‘নন্দিনী’ ছবির নায়িকা মৌ। কিভাবে কী হলো! মৌ বলেন, “পরিতোষ বাড়ৈর ‘নরক নন্দিনী’ পড়তে দিয়ে পরিচালক বলেছিলেন এই উপন্যাস থেকে সিনেমা করব, আপনাকে নন্দিনী করতে চাই। বাসায় গিয়ে পুরো উপন্যাস পড়ে মুগ্ধ হয়েছিলাম। তবু আমার মাকে দিয়েছিলাম উপন্যাসটি পড়তে। মা পড়ে জানালেন অবশ্যই তুমি এই সিনেমায় অভিনয় করবে। ব্যস, রাজি হয়ে গেলাম।” নায়িকার নামেই ছবির নাম—‘নন্দিনী’। পর্দায় নন্দিনী হওয়ার জন্য বিশেষভাবে প্রস্তুতি নিয়েছেন মৌ। শুটিং করেছেন বাংলাদেশ ও ভারতে। এরই মধ্যে ষাট শতাংশ শুটিং হয়েছে। মার্চেই শেষ হবে বাকি অংশের শুটিং। মুক্তি পাবে বছরের শেষের দিকে।

ছবিতে তাঁর নায়ক টালিগঞ্জ ও বলিউড অভিনেতা ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত। তিনি এর আগে বাংলাদেশে রেদওয়ান রনির ‘চোরাবালি’ ও মোস্তফা কামাল রাজের ‘সম্রাট’-এ অভিনয় করেছিলেন। ‘শুটিংয়ের প্রথম দিন ইন্দ্রনীলের সঙ্গে অভিনয় করেছি ভয়ে ভয়ে। পরে অবশ্য ভয়টা কেটে গেছে। তিনি বেশ মিশুক’—বললেন মৌ।

পরিচালক রাসেলেরও এটি প্রথম সিনেমা। বললেন রাসেলকে নিয়েও, ‘তিনি খুবই গুছিয়ে কাজ করেন। আগে তাঁর বেশ কয়েকটা নাটকে অভিনয় করেছি, ট্রাভেল শোও করেছি। নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করেছেন পরিচালক।’

মৌ, ইন্দ্রনীল ছাড়াও ছবিতে আরো আছেন ফজলুর রহমান বাবু, মনিরা ইউসুফ মেমী, ইলোরা গহর।

চলচ্চিত্র নিয়ে বিশেষ কোনো পরিকল্পনা নেই মৌয়ের। প্রস্তাব পেলে পছন্দ হলে করবেন। নিয়মিত অভিনয় করতে চান টিভি নাটকেই।

 মৌয়ের ক্যারিয়ারের টার্নিং পয়েন্ট নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরীর পরপর বেশ কয়েকটি নাটকে অভিনয়, এমনটাই মনে করেন তিনি। ‘জলছাপ’, ‘অনুমতি প্রার্থনা’, ‘শেষের পরে’, ‘দূর নক্ষত্রের কাছে’, ‘তালপাতার পাখা’—নাটকগুলো প্রশংসিত হয়।

এখন কী নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটছে? মৌ বলেন, “ছবির বাকি অংশের শুটিংয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছি। তিনটি ধারাবাহিক নাটক প্রচারিত হচ্ছে—এস এম শাহীনের

‘সোনাভান’, আকাশ রঞ্জনের ‘রসের হাঁড়ি’ ও ফরিদুল হাসানের ‘লাকি থার্টিন’। প্রায় প্রতিদিনই শুটিং থাকে ধারাবাহিকের। মাঝে শুটিং করলাম অঞ্জন আইচের দুটি একক নাটক—‘হাফ মেন্টাল’ ও ‘মাত্র পাঁচ কোটি টাকা’।”

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা