kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ইমরান-আনিসার যুগলবন্দি

আজ প্রকাশিত হবে ইমরান মাহমুদুল ও আতিয়া আনিসার গান ‘মেঘেরই খামে’। জি বাংলার রিয়ালিটি শো ‘সা রে গা মা পা’ প্রতিযোগী আনিসার প্রথম গান এটিই। দুজনকে নিয়ে লিখেছেন আতিফ আতাউর

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



ইমরান-আনিসার যুগলবন্দি

২০১৮ সালটা ছিল আনিসার জন্য পয়মন্ত। মৌলিক গানের শিল্পী হওয়ার স্বপ্ন দেখেন ছোটবেলা থেকেই। স্বপ্নপূরণের ধাপে পা দিয়েছেন গত বছরই। ‘একে একে তিনটি গানে কণ্ঠ দিয়েছি। তা-ও আবার হালের ক্রেজ ইমরানের সঙ্গে ডুয়েট। প্রথম গানটি প্রকাশ পাবে আজ। এর মধ্যে আছে একটি সিনেমার গান। পয়মন্ত না বলে উপায় আছে!’—বললেন আনিসা।

ভারতের জি বাংলায় চলছে জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো ‘সা রে গা মা পা’। এই শোতেও অংশ নিয়েছিলেন গত বছর। শান্তনু মৈত্র, শ্রীকান্ত আচার্য ও মোনালি ঠাকুরের মতো বাঘা বাঘা বিচারকের সামনে গান গেয়ে সুনাম কুড়িয়েছেন। দারুণ আশা জাগালেও ছিটকে পড়তে হয়েছে সেরা বিশের লড়াই থেকে।

গান শেখার পর থেকেই আইডল মানেন শ্রেয়া ঘোষালকে। স্বপ্ন দেখেন তাঁর মতো গান গাওয়ার। সে কারণেই অংশ নিয়েছিলেন ‘সা রে গা মা পা’য়, ‘জানি শ্রেয়া ঘোষাল একজনই। কিন্তু তাঁর মতো হতে চাইতে তো বাধা নেই। সা রে গা মা পা অনেক বড় প্ল্যাটফর্ম। সেখানে ভালো করলে ভারতের শ্রোতা ও সংগীতজ্ঞদের নজরে পড়ার সুযোগ আছে। শেখার আছে অনেক কিছু। সে কারণেই মূলত অংশ নিয়েছিলাম এই রিয়ালিটি শোতে।’

সেই উদ্দেশ্য খানিকটা পূরণও হয়েছে বলে জানালেন আতিয়া। তাঁদের গ্রুমিং করাতেন কলকাতার এক সংগীত পরিচালক। আনিসার গান শুনে সেখানকার ছবিতে গাওয়ার সুযোগ করে দিতে চেয়েছেন। ব্যাটে-বলে মিলে গেলে হয়তো এ বছরই ডাক আসতে পারে টালিউড থেকে।

‘সা রে গা মা পা’য় গেয়ে ভারত-বাংলাদেশে ব্যাপক আলোচিত হয়েছেন বাংলাদেশের আরো দুই প্রতিযোগী—মাঈনুল আহসান নোবেল ও অবন্তি দেব সিঁথি। প্রতিযোগিতায় এখনো টিকে আছেন তাঁরা। খুব কাছ থেকে তাঁদের দেখে খুবই আশান্বিত আনিসা,  ‘নোবেল ভাইয়া ও সিঁথি আপুকে নিয়ে ভারতের দর্শক-শ্রোতাদের উচ্ছ্বাস দেখেছি। একজন বাংলাদেশি হিসেবে তাঁদের জন্য খুব গর্ব হয়েছে।’

এর আগে ২০১৭ সালে চ্যানেল আই ‘সেরা কণ্ঠ’তে অংশ নিয়েছিলেন। উঠে এসেছিলেন প্রতিযোগিতার সেরা সাতে। এ দুই প্রতিযোগিতায় আনিসার গান শুনে উৎসাহ দিয়েছেন ইমরান। আতিয়া বলেন, “আমাদের মধ্যে আগে থেকেই পারিবারিক পরিচয় ছিল। নতুনদের নিয়ে কাজ করতে পছন্দ করেন ইমরান। আগে গান নিয়ে অতটা সিরিয়াস ছিলাম না। তিনিই আমাকে উৎসাহ দিতেন। আমার কণ্ঠ নাকি ট্রেন্ডি, ইউনিক, ভার্সেটাইল—এসব বলে প্রেরণা জোগাতেন। একদিন তিনিই ডেকে মুহম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের ছবি ‘যদি একদিন’-এ প্লেব্যাক করার সুযোগ করে দেন।”

‘যদি একদিন’ ছবির বিষয়ে আগে থেকে কিছুই জানতেন না আনিসা। যখন শুনলেন ছবির নায়ক তাহসান আর নায়িকা ভারতের শ্রাবন্তী, তখনই বুকের ভেতর ধুকপুকানি শুরু। বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস চাপা রেখে সেখানেই বার কয়েক রিহার্সাল সেরে গান রেকর্ড করেন। দ্বৈত গানটিতে তাঁর সঙ্গে কণ্ঠ দিয়েছেন গায়ক-সুরকার ইমরান। আরো একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন দুজন। এ বছর সেটি প্রকাশ পাবে লেজার ভিশন থেকে।

একজন নতুন শিল্পীর পর পর তিনটি গানেই সহশিল্পী ইমরান। ইমরান বলেন, ‘তিনটি নয়, আমার আরো বেশ কয়েকটি গান প্রকাশ পাবে আনিসার সঙ্গে। এ বছর শুধু আনিসাসহ আরো কয়েকজন নতুন শিল্পীর সঙ্গে কাজ করছি। নতুনদের নিয়ে কাজ করতে সব সময়ই আমি আগ্রহী। এটাকে চ্যালেঞ্জিংও মনে হয়। নতুনদের কাছ থেকেও অনেক কিছু শেখা যায়।’

আনিসার সঙ্গে ইমরানের পরিচয় অনেক আগে থেকেই। বলেন, “ওর বাবা গানের মানুষ। সেই সূত্রে ওকে চিনি। ‘সেরা কণ্ঠ’ ও ‘সা রে গা মা পা’য় ওকে যখন গাইতে শুনলাম, মনে হলো ওর কণ্ঠ আরো পরিপক্ব হয়েছে। মনে হলো, এ রকম একটি কণ্ঠই তো আমি খুঁজছিলাম। তার পরই ওকে ডেকে এনে গান করি।’

আতিয়ার মধ্যে দারুণ সম্ভাবনা দেখছেন, ‘ওর কণ্ঠে অনেক মেলোডি, ভার্সেটাইলও। গলায় সব রকমের গান তুলতে পারে। আমার মনে হয় ভবিষ্যতে ও দারুণ কিছু করবে।’ 

‘মেঘেরই খামে’র ভিডিও করার সময় দেখা দিল বিপত্তি। আগে কখনোই অভিনয় করেননি। পারবেন তো আনিসা! সাহস দেন ইমরান। কিন্তু শুটিংয়ের আগেই অসুস্থ হয়ে পড়েন আতিয়া। জীবনের প্রথম গানের ভিডিওর শুটিং, অসুস্থ শরীরেই দাঁড়িয়ে যান ক্যামেরার সামনে। ‘সর্বোচ্চ এফোর্ট দিয়ে কাজটা করেছি। পরিচালক ভিকি জাহেদ, ইমরানও যথেষ্ট সহায়তা করেছেন। এখন অধীর অপেক্ষায় আছি দর্শক-শ্রোতার প্রতিক্রিয়া জানার জন্য’—বললেন আতিয়া। নিজের অভিনয় নিয়ে খানিকটা দোটানায় থাকলেও ইমরানের কথায় তা মনে হলো না, ‘ও অনেক সুন্দর অভিনয় করেছে। অসুস্থ ছিল সেটা বুঝতেও দেয়নি। ভিডিওতে একটি টুইস্ট আছে। দর্শক দেখলেই সেটা বুঝতে পারবেন।’

আনিসার জন্ম ও বেড়ে ওঠা ঢাকাতেই। এসএসসির পর থেকেই বাচ্চাদের গান শেখান। পেয়েছেন নতুন দায়িত্ব। চ্যানেল আইয়ের রিয়ালিটি শো ‘ক্ষুদে গানরাজ’-এর পরিবর্তিত ভার্সন ‘গানের রাজা’র গ্রুমার হিসেবে যোগ দিয়েছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা