kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

স্যাটেলাইট

নীরব অভিব্যক্তির গল্প

ঝিল ও সঞ্জু, এক জোড়া বাকপ্রতিবন্ধী তরুণ-তরুণীর কাছ   

১৯ মার্চ, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নীরব অভিব্যক্তির গল্প

পিতৃ-মাতৃহীন বাকপ্রতিবন্ধী ঝিল ভালো নৃত্যশিল্পী। নাচের দল 'তাল'-এর প্রধান নৃত্যশিল্পী হিসেবে তার পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা রয়েছে। হৃদয়ের নানা অভিব্যক্তি নাচের মাধ্যমে প্রকাশ করতে চায় ঝিল। 'তাল'-এ যারা আছে তারা সবাই ঝিলের মতোই বাকপ্রতিবন্ধী। দীঘি নামে ঝিলের এক বোন সেও মূক ও বধির। দুই বোন জীবনযুদ্ধে জয়ী হওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে।

একসময় ঝিলের সঙ্গে সঞ্জুর দেখা হয়। ধনী পরিবারের ছেলে সঞ্জুও কথা বলতে পারে না। বাকপ্রতিবন্ধী সন্তান সঞ্জুর সঙ্গে নৃত্যশিল্পী ঝিলের পরিচয় ও ঘনিষ্ঠ হওয়ার ক্ষেত্রে সঞ্জুর বাবা যশজিৎ মুখার্জি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। ঝিলকে দেখে খুব মুগ্ধ হয়ে পারফেক্ট পুত্রবধূ হিসেবে পছন্দ করেন। তিনি চান সঞ্জু ও ঝিল বন্ধু হিসেবে কাছাকাছি আসুক, জীবনসঙ্গী হিসেবে একে অপরকে বেছে নিক। ঝিল ও সঞ্জু পরস্পরের প্রতি আকৃষ্ট হয়, নীরবতার মধ্যেই হৃদয়ে গভীর প্রেম বিকশিত হতে থাকে। একজন আরেকজনের জন্য গভীরভাবে অনুভব করে। মুখে কিছু বলতে না পারলেও হৃদয়ের ভাষা বুঝে নেয় উভয়ে অভিব্যক্তি আর অনুভবে।

এক জোড়া বাকপ্রতিবন্ধী তরুণ-তরুণীর ব্যতিক্রমধর্মী প্রেমকাহিনী চমৎকারভাবে তুলে ধরা হচ্ছে 'তুমি রবে নীরবে' সিরিয়ালে। ৭৫টি এপিসোড দেখানো হয়েছে এবং ভিন্ন স্বাদের প্রেমের গল্পের কারণে 'তুমি রবে নীরবে' জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। সঞ্জু ও ঝিলের চরিত্রে অভিনয় করছেন যথাক্রমে শুভঙ্কর সাহা ও শ্বেতা ভট্টাচার্য্য। নীরবতা হৃদয়ের একান্ত অনুভূতি প্রকাশের ভাষা হতে পারে, ঝিল চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তা প্রমাণ করেছেন শ্বেতা। ছোট পর্দার জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী আগেও বিভিন্ন সিরিয়ালে দর্শকের মন জয় করেছেন। সিরিয়ালটিতে অভিনয়ের আগে মূক ও বধির নারীদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে থেকে তাদের প্রকাশভঙ্গি রপ্ত করেছেন। আর সেই অভিজ্ঞতা থেকে ঝিল চরিত্রটি রূপায়ণ করছেন। প্রতি সোমবার থেকে শনিবার রাত ৯টায় সিরিয়ালটি দেখানো হয়।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা