kalerkantho

রবিবার । ৮ কার্তিক ১৪২৮। ২৪ অক্টোবর ২০২১। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আমি তোমাকে ভালোবাসি

প্রেমের ফাঁদ পাতা ভুবনে কখন যে কে ধরা পড়ে, বলা মুশকিল। তবে সম্পর্কের স্বীকৃতি আসে একটা মাত্র বাক্যে- \'আমি তোমাকে ভালোবাসি\'। শোবিজ তারকাদের জীবনেও প্রেম আসে। তারকাদের সফল প্রেম প্রস্তাবের কিছু নমুনা পাঠকের জন্য...

   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আমি তোমাকে ভালোবাসি

বেশ নার্ভাস ছিলাম

আবুল হায়াত

শিরিনকে প্রথম প্রেমের প্রস্তাব কিভাবে দিয়েছিলাম, সেটা এখন পুরোপুরি মনে নেই। প্রায় ৫০টা বছর কেটে গেছে। মনে না থাকাই স্বাভাবিক। তবে বেশ নার্ভাস ছিলাম, সেটা মনে আছে। দুজনই আগে থেকে দুজনের প্রতি দুর্বল ছিলাম তো। কথা বলে, বুঝিয়ে প্রেম প্রকাশ করতে হয়নি। কথার চেয়ে ভাবভঙ্গিই বেশি ছিল। এক্সপ্রেশন দিয়েই বোঝাতে হয়েছিল ভালোবাসার কথা। তবে রিপ্লাই পেয়েছিলাম সঙ্গে সঙ্গেই।

প্রস্তাবটা দুজনের দিক থেকে

রফিকুল আলম

১৯৭৮ সালের ঘটনা। 'দূরের আকাশ' শিরোনামে পহেলা বৈশাখের একটি দ্বৈত গানে কণ্ঠ দিতে যাই আমি আর আবিদা (আবিদা সুলতানা)। প্রথম দেখাতেই দুজনের প্রতি দুজনের ভালো লাগা। একে অন্যের আরো কাছে আসার চেষ্টা করি। বলা যায়, প্রস্তাবটা দুজনের দিক থেকে একসঙ্গেই এসেছে। শুরু হয় ভালোবাসাবাসি। বছর দুই-তিন পর বিয়ে হয়, সেদিনও ছিল পহেলা বৈশাখ।

আমার কথা শুনে তিশা হতভম্ব

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী

২০০৫ সালের ৩১ অক্টোবর, কালীগঞ্জে শুটিং চলছে। তিশাকে সরাসরি বললাম, 'আমি তোমাকে বিয়ে করতে চাই। তুমি কি আমাকে বিয়ে করবা?' আমার কথা শুনে তিশা হতভম্ব। তিশার সঙ্গে যখন পরিচয় হয়, তখন আমি প্রেমবিধ্বস্ত যুবক। মনে গভীর দুঃখ নিয়ে ঘুরে বেড়াই। ঘুরেফিরে তিশার সঙ্গে সেসব কথা বলি। ও প্রচুর আগ্রহ নিয়ে শোনে। আমি বলি, 'তোমার মতো কেউ থাকলে আমি তাঁকে বিয়ে করতাম' অথবা সে বলে, 'আমার কোনো বড় বোন থাকলে আমি আপনার সঙ্গে তাঁর বিয়ে দিতাম'। কিন্তু এভাবে কত দিন চলতে পারে! সাহস করে বলেই দিয়েছিলাম।

ও খুবই খুশি

ওমর সানী

মৌসুমীকে আমিই প্রথম ভালোবাসার কথা বলেছিলাম। একসঙ্গে কাজ করতে করতে কখন যে ওর প্রতি দুর্বল হয়ে গিয়েছিলাম বুঝিনি। একদিন বলেই ফেললাম- 'আমি তোমাকে ভালোবাসি'। ও খুবই খুশি। বুঝলাম, মনে মনে ও নিজেও আমাকে ভালোবাসত।

বলে দিলাম 'আই লাভ ইউ'

নাঈম

শাবনাজকে যখন প্রথম দেখি, সেদিনই ওকে ভালো লাগে। প্রথম ছবি 'চাঁদনী' করার সময়ই আমরা ঘনিষ্ঠ হয়ে পড়ি। ওকে নিয়ে মাঝেমধ্যে শপিংয়ে যেতাম। ও আমার পছন্দকে সম্মান করত। একদিন শুটিংয়ের ফাঁকেই ওকে বলে দিলাম- 'আই লাভ ইউ'। ও আমার দিকে তাকিয়ে বলল, 'জানি তো'। আমি বললাম, 'কিভাবে'। ও বলল, প্রথম দিন থেকেই বুঝতে পেরেছিলাম। আর আমিও তোমাকে ভালোবেসেছি। শাবনাজের কথায় তখন আমার মাথায় এলো- ও কেন শুটিং শেষে আমার সঙ্গে গল্প করতে চাইত।

ফরমালি কেউ কাউকে কিছু বলিনি

আসিফ আকবর

আমি তখন মিতুর বড় ভাই এমদাদুল হক ইমদু ভাইয়ের অধীনে ক্রিকেট কোচিং করতাম। মিতু আমাদের প্র্যাকটিস দেখতে আসত। আমি ছিলাম মারমুখী। সে এটা খুব পছন্দ করত। আমারও ভালো লাগা শুরু। ফরমালি কেউ কাউকে কিছু বলিনি। 'আই লাভ ইউ' কিংবা 'আমি তোমায় ভালোবাসি' কথাগুলো আমাদের কারোই ভালো লাগত না। মন থেকে দুজন দুজনকে অনুভব করেছি, ভালোবেসেছি।

অটোগ্রাফ নিতে বাসায় মিথিলা

তাহসান

আমার এক বন্ধুর সঙ্গে অটোগ্রাফ নিতে বাসায় আসে মিথিলা। প্রথম দেখাতেই ওকে ভালো লাগে। জানতে পারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে। একদিন ঢাবি ক্যাম্পাসে আমরা দেখা করি। আমি তাকে বলি, 'তোমাকে আমার ভালো লেগেছে। এটা এক ধরনের আকর্ষণ। এর পেছনে কি কারণ থাকতে পারে। আমি সেটা জানতে চাই। জানার সুযোগটা কি আমি পাব?' সে তাতে সম্মতি দেয়। এটা ছিল মিথিলাকে আমার প্রস্তাব।

 

 



সাতদিনের সেরা