kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ মাঘ ১৪২৮। ২৭ জানুয়ারি ২০২২। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সবার নজর ‘মায়া’র দিকে

রংবেরং প্রতিবেদক   

২৮ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



সবার নজর ‘মায়া’র দিকে

২০১৯ সালের ২৭ ডিসেম্বর মুক্তি পায় মাসুদ পথিকের ‘মায়া—দ্য লস্ট মাদার’। সে বছর আট ক্যাটাগরিতে ১০টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পায় ছবিটি। দেশের বাইরেও আটটি পুরস্কার পায় ‘মায়া’। মুক্তির দুই বছর যেতে না যেতে আবার একই নামে ছবি নির্মাণ করতে যাচ্ছেন জসিম উদ্দিন জাকির।

বিজ্ঞাপন

তাঁর ‘মায়া’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য এর মধ্যে চুক্তিবদ্ধ করেছেন জিয়াউল রোশানকে। ফেব্রুয়ারির ১ তারিখ থেকে শুরু করবেন শুটিং। পরিচালক সমিতিতে নামও নিবন্ধন করেছেন। কিন্তু সমিতির নিয়মে আছে, কোনো ছবি মুক্তির পর থেকে ১২ বছরের মধ্যে একই নামে অন্য কেউ ছবি নির্মাণ করতে পারবেন না। তাহলে কিভাবে ‘মায়া’ নামটি পেলেন জসিম? “মাসুদ পথিক পরিচালক সমিতির সদস্য নন। সমিতিতে তাঁর ছবিটির নামও নিবন্ধিত হয়নি। আমরা কোনো ছবির নাম দেওয়ার আগে নথিপত্র দেখি। সেখানে ‘মায়া’ নামে কোনো ছবির নাম আগে কাউকে দেওয়া হয়নি। তাই জসিম আবেদন করায় সমিতি তাঁকে লিখিত অনুমতি দিয়েছে”—বললেন পরিচালক সমিতির উপমহাসচিব কবিরুল ইসলাম রানা।

এদিকে সমিতির সদস্য না হয়েও পর পর দুটি ছবি [‘নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ’ ও ‘মায়া—দ্য লস্ট মাদার’] নির্মাণ করেছেন মাসুদ পথিক। শ্রেষ্ঠ পরিচালক হিসেবেও  পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। অথচ তিনি পরিচালক সমিতির সদস্য পদ নেননি। কেন নেননি? এবং তাঁর ছবির নামে অন্য কেউ ছবি বানালে তাঁর কোনো আপত্তি আছে কি না? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রথমত আমি নিজে থেকে আগ্রহী হয়ে পরিচালক সমিতির সদস্য হতে চাই না। দেশে-বিদেশে আমার স্বীকৃতি রয়েছে। পরিচালক সমিতি যদি চায় তাহলে সদস্য হতে রাজি, নইলে নিজের টাকা খরচ করে সদস্য পদ নেওয়ার ইচ্ছা নেই। দ্বিতীয়ত, নিয়ম মেনে আমার ছবির নামে কেউ ছবি নির্মাণ করতে চাইলে আপত্তি নেই। যদি ১২ বছরের আগে নাম নেওয়া না যায়, তাহলে সেটাও সমিতিকে দেখতে হবে। আমি সদস্য না হলেও সমিতিকে সম্মান করি। ’

এদিকে একই নামে ছবি নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছেন ‘হিরো দ্য সুপারস্টার’ শাকিব খানও। ১৫ নভেম্বর আমেরিকায় একটি জমকালো অনুষ্ঠানে ছবিটি নির্মাণের ঘোষণা দেন তিনি। শাকিব খান প্রযোজিত ‘মায়া’ পরিচালনা করবেন হিমেল আশরাফ। এর মধ্যে ফেরারী ফরহাদ গল্প লেখার কাজও শেষ করেছেন। তবে ‘মায়া’ নামে আরো ছবি হচ্ছে এটা জানতেন না পরিচালক হিমেল। তিনি বলেন, “চারিদিকে ‘মায়া’ নিয়ে এত টানাহেঁচড়া হচ্ছে জানতাম না। গল্প অনুযায়ী নামটা খুব দরকার আমাদের। খুবই হৃদয়স্পর্শী একটা গল্প। এখন পরিচালক সমিতি যদি বাদ সাধে তাহলে তো কিছু করার থাকবে না। আমি অবশ্য চেষ্টা করব ‘মায়া’ নামটি রাখার। প্রয়োজন হলে জসিম ভাইকে অনুরোধ করব। ”

তবে হিমেলের কথার রেশ ধরে জসিম বলেন, “আমরা সবাই একই ইন্ডাস্ট্রির মানুষ। শাকিব ভাইকে ভালোবাসি। তিনি যদি অনুরোধ করেন তাহলে তো ফেলতে পারব না। তবে সত্যি বলতে, আমার গল্পটার সঙ্গে ‘মায়া’ নামটি পারফেক্ট। অন্য কোনো নাম এতটা আবেদন তৈরি করে না। ” একই কথা বললেন, জসিমের ছবির নায়ক রোশানও, ‘এক যুবক খেলার ছলে একটা ভুল করে ফেলে। সেই ভুল শোধরাতে সে নিজের জীবন দিতেও রাজি। পরিবার-পরিজনের কাছে যে করেই হোক ফিরতে চায় সে। পুরো মায়াময় একটা গল্প। এই গল্পে মায়া নামের বিকল্প নেই। তবে পরিচালক যে সিদ্ধান্ত নেবেন আমি তাতেই রাজি। ’

শুধু বাংলাদেশে নয়, কলকাতায়ও হচ্ছে ‘মায়া’। রাজর্ষি দে’র পরিচালনায় সেই ছবিতে অভিনয় করছেন বাংলাদেশের রাফিয়াত রশিদ মিথিলা।



সাতদিনের সেরা