kalerkantho

সোমবার । ১৪ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

তদন্তের মুখে আম্বার

রংবেরং ডেস্ক   

১ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তদন্তের মুখে আম্বার

ঘটনা ২০১৫ সালের। কিন্তু পুরনো এই ঘটনার জন্য নতুন করে বিপদে পড়তে পারেন অভিনেত্রী আম্বার হার্ড। ২০১৫ সালে অনুমতি ছাড়াই অস্ট্রেলিয়ায় কুকুর নিয়ে প্রবেশের দায়ে অভিযুক্ত হন সাবেক দম্পতি আম্বার হার্ড ও জনি ডেপ। প্রাণী চোরাচালান মামলায় ফেঁসে যেতে বসেছিলেন দুই তারকা। সেবার ক্ষমা চেয়ে পার পান দুজন। পত্রপাঠ কুকুর নিয়ে ব্যক্তিগত বিমানে দেশে ফেরেন। ঘটনার নতুন মোড় নিয়েছে জনির সাবেক ম্যানেজার কেভিন মারফির মামলা দায়েরের পর। গেল বছর মামলার অভিযোগনামায় কেভিন বলেন, ‘আম্বার দাবি করেছিলেন পোষা প্রাণী নিয়ে অস্ট্রেলিয়ান সরকারের কঠোর নিয়ম সম্পর্কে তিনি অবগত ছিলেন না, কিন্তু আদতে এটা ডাহা মিথ্যা কথা, সব জেনেও তিনি অনুমতি নেননি এবং তাঁর স্বামীকেও জানাননি।’ অস্ট্রেলিয়ায় পোষা প্রাণী নিয়ে প্রবেশ করতে আগে থেকেই অনুমতি নিতে হয় ও দেশটিতে প্রবেশের পর কমপক্ষে ১০ দিনের কোয়ারেন্টিন করতে হয়। নতুন অভিযোগ আমলে নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়ার কৃষি, পানি ও পরিবেশ বিভাগ। ৩০ অক্টোবর এক বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, বিষয়টি নিয়ে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা ‘এফবিআই’-এর সঙ্গে তারা যোগাযোগ রাখছে। তবে আম্বারের আইনজীবী এলানি ব্রিডিহফ বলেন, ‘আমি নিশ্চিতভাবেই বলতে পারি অস্ট্রেলিয়ার সরকার বা এফবিআই কেউই নতুন করে সেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেনি। কারণ কয়েক বছর আগেই এটা মিটে গেছে। যুক্তরাজ্যের আদালতও বিষয়টি পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর তাঁদের দোষী সাব্যস্ত করেননি।’

সূত্র : ইয়াহু



সাতদিনের সেরা