kalerkantho

বুধবার । ৪ কার্তিক ১৪২৮। ২০ অক্টোবর ২০২১। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

মৌমাছির রানি

রংবেরং ডেস্ক   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মৌমাছির রানি

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিকের ফটোশুটে অ্যাঞ্জেলিনা জোলি

এ বছরের ২০ মে বিশ্ব মৌমাছি দিবসে নিজের শরীরে শত শত মৌমাছি নিয়ে ফটোশুট করে সাড়া ফেলেছিলেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। মূলত মৌমাছি নিয়ে সচেতনতা তৈরিতেই ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক ম্যাগাজিনের জন্য ওই ছবিগুলো তুলেছিলেন অভিনেত্রী। অস্কারজয়ী এই তারকা বেশ কিছুদিন ধরেই ফরাসি ব্যান্ড ‘গার্লেইন’ ও জাতিসংঘের সংস্থা ইউনেসকোর সঙ্গে মৌমাছি রক্ষায় কাজ করছেন। মৌমাছি নিয়ে কাজের জন্য এবার জোলিকে ‘গডমাদার অব বিজ’ উপাধি দিল ‘গার্লেইন’। একই সঙ্গে ঘোষণা করা হলো উইমেন ফর বিজ প্রজেক্টের পরবর্তী সূচিও। এই প্রজেক্টের লক্ষ্য আগামী পাঁচ বছরে মৌমাছি চাষের জন্য ৫০ নারীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া, ইউনেসকোর ২৫টি জীবমণ্ডলে দুই হাজার ৫০০ মৌচাক তৈরি করা। যেখানে সাড়ে ১২ কোটি মৌমাছির জন্ম হবে। ইউনেসকোর ২৫ জীবমণ্ডল রয়েছে কম্বোডিয়া, ফ্রান্স, চীনসহ বিভিন্ন দেশে। জোলি বলেন, ‘আমরা চাচ্ছি ৫০ জন নারী যাতে মৌমাছি চাষ সম্পর্কে ভালোভাবে ধারণা পান। পুরো বিষয়টি কিভাবে হবে তা নিয়ে ইউনেসকোর সঙ্গে আমরা কাজ করব। সামনের বছর প্রশিক্ষণ হবে কম্বোডিয়ায়। যেখানে আমি থাকব।’ মৌমাছির গুরুত্ব নিয়ে যে এখনো কথা বলতে হয় সেটা জোলির কাছে ভীষণ অদ্ভুত লাগছে, ‘এটা রেগে যাওয়ার মতো ব্যাপার, তাই না?’



সাতদিনের সেরা