kalerkantho

রবিবার । ১০ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৫ জুলাই ২০২১। ১৪ জিলহজ ১৪৪২

নিষিদ্ধ সাহস

রংবেরং প্রতিবেদক   

১৭ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিষিদ্ধ সাহস

‘রাইয়ান’ ও ‘অর্পিতা’র পর নাজিয়া হক অর্ষার তৃতীয় চলচ্চিত্র ‘সাহস’। বৃহত্তর খুলনা অঞ্চলের মানুষের জীবন ও জীবিকা নিয়ে তৈরি ছবিটি গত সপ্তাহে সেন্সরে জমা পড়ে। ১৫ জুন সেন্সর বোর্ড ছবিটিকে ‘প্রদর্শনযোগ্য নয়’ বলে ঘোষণা করেছে। ঘটনা জানার পর অবাক অর্ষা, ‘আমি খুব বেছে বেছে কাজ করি। গল্প পছন্দ না হলে চলচ্চিত্র কেন, নাটকেও অভিনয় করি না। এই ছবির গল্প কোনোভাবেই নিষিদ্ধ হওয়ার মতো নয়। দু-একটি দৃশ্য হয়তো স্পর্শকাতর হতে পারে, সেটা তো কর্তনসাপেক্ষে ছাড়পত্র দেওয়াই যেত! সরাসরি নিষিদ্ধ করাটা অন্যায় হয়েছে।’

পরিচালক সাজ্জাদ খান বলেন, ‘আমি দেশবিরোধী বা স্বাধীনতাবিরোধী কোনো ছবি নির্মাণ করিনি। আমার ছবিতে কোনো রকম অশালীন দৃশ্য বা প্রশাসনকে কটাক্ষও করা হয়নি। খুলনার সাধারণ মানুষের জীবন ও জীবিকা তুলে ধরেছি ছবিটির মাধ্যমে। সেটা কি অন্যায় হয়েছে! বলা হয়েছে ছবির সংলাপে সমস্যা আছে। তাহলে সেটা বললে আমি কর্তন করে আবার জমা দিতাম। কিন্তু নিষিদ্ধ কেন?’

অভিনেত্রী ও পরিচালকের অভিযোগ সম্পর্কে সেন্সর বোর্ডের সদস্য ও প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ‘ছবির গল্প সুন্দর। কিন্তু প্রথম দৃশ্য থেকে শেষ দৃশ্য পর্যন্ত অশালীন সংলাপে ভরা। এ ধরনের ছবি প্রদর্শন সমাজের জন্য ক্ষতির কারণ হবে। পরিচালক চাইলে এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন। তবে সংলাপ পরিবর্তন না করলে কোনো লাভ হবে বলে মনে হয় না।’



সাতদিনের সেরা