kalerkantho

বুধবার । ১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ এপ্রিল ২০২১। ১ রমজান ১৪৪২

অগ্রজকে নিয়ে অনুজের চলচ্চিত্র

রংবেরং প্রতিবেদক   

৭ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অগ্রজকে নিয়ে অনুজের চলচ্চিত্র

‘সুতপার ঠিকানা’ খ্যাত নির্মাতা প্রসূন রহমানের নতুন ছবি ‘ঢাকা ড্রিম’ সেন্সর ছাড়পত্র পেল গত মাসে। তরুণ এই নির্মাতা পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের বাইরে অগ্রজ নির্মাতাদের নিয়ে একের পর এক প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করে চলেছেন। প্রথম প্রামাণ্যচিত্র ‘ফেরা’ নির্মাণ করেছিলেন তারেক মাসুদকে নিয়ে। প্রয়াত নির্মাতার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে প্রদর্শিত হয় ছবিটি। তারই ধারাবাহিকতায় তানভীর মোকাম্মেলকে নিয়ে নির্মাণ করেছেন প্রামাণ্য চলচ্চিত্র ‘নদী ও নির্মাতা’। আগামীকাল ৮ মার্চ তানভীর মোকাম্মেলের জন্মদিন। এই দিনে বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ মিলনায়তনে সন্ধ্যা ৬টায় চলচ্চিত্রটির একটি বিশেষ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। প্রসূন রহমান বলেন, ‘গত বছরের মার্চেই চলচ্চিত্রটির প্রদর্শনী হওয়ার কথা ছিল। কভিডের কারণে তখন প্রদর্শনী স্থগিত করতে হয়। তানভীর ভাইয়ের এবারের জন্মদিনের উপলক্ষটা মিস করতে চাইনি।’

কী আছে ‘নদী ও নির্মাতা’য়? প্রসূন বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ ও প্রান্তিক মানুষের জীবনের পাশাপাশি বাংলাদেশের নদী তাঁর খুব প্রিয়। নদী ও নদীকেন্দ্রিক মানুষের জীবন নিয়ে তিনি নির্মাণ করেছেন একাধিক প্রামাণ্য ও পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। একটি দ্বিতল নৌযানে করে ধলেশ্বরী ও ইছামতী নদীর বুকে ভ্রমণের ফাঁকে প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটির শুটিং করেছি। এখানে উঠে এসেছে তাঁর জীবন, ভালোবাসা ও বিশ্বাস, স্বপ্ন ও দ্রোহ, শিল্প ও দর্শন। কথা বলেছেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ও চলচ্চিত্রের ভবিষ্যৎ নিয়ে। সেখান থেকে সম্পাদিত কথামালা নিয়ে ৫৫ মিনিটের এই চলচ্চিত্র।’

চলচ্চিত্রের আরো দুজন মানুষকে নিয়ে প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাণের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন প্রসূন। এঁরা হলেন মোরশেদুল ইসলাম ও মানজারে হাসীন মুরাদ। কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হককে নিয়েও আরেকটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করবেন। ‘বাইরের দেশে এমন গুণী ব্যক্তিত্বদের নিয়ে বিভিন্ন সংস্থা সাধারণত চলচ্চিত্র নির্মাণ করে থাকে। আমাদের দেশে সেই রেওয়াজ নেই। তাই ব্যক্তি উদ্যোগেই কাজটা করার চেষ্টা করছি’, বললেন প্রসূন।

মন্তব্য