kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ মাঘ ১৪২৭। ২১ জানুয়ারি ২০২১। ৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

প্রসঙ্গ—জাতীয় পুরস্কার

যা বললেন নাসির উদ্দীন ইউসুফ

রংবেরং প্রতিবেদক   

৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যা বললেন নাসির উদ্দীন ইউসুফ

নাসির উদ্দীন ইউসুফ

৩ ডিসেম্বর এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে তথ্য মন্ত্রণালয়। পুরস্কারের তালিকায় গত বছরের প্রশংসিত ছবি ‘লাইভ ফ্রম ঢাকা’ ও ‘আলফা’ না থাকায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। কালের কণ্ঠ’র তৈরি সালতামামিতেও বছরের অন্যতম সেরা ছবি হয়েছিল এ দুটি। খোঁজ নিয়ে জানা গেল, আব্দুল্লাহ মুহাম্মদ সাদ তাঁর ‘লাইভ ফ্রম ঢাকা’ পুরস্কারের জন্য জমাই দেননি। অনেকেই মনে করেছেন নাসির উদ্দীন ইউসুফও হয়তো তাঁর ‘আলফা’ জমা দেননি। পরিচালকের আগের ছবি ‘গেরিলা’ (২০১১) যেখানে ১০টি শাখায় পুরস্কার পেয়েছিল, ‘আলফা’র মতো প্রশংসিত ছবি কি একটি শাখায়ও পুরস্কার পেতে পারত না?

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাসির উদ্দীন ইউসুফ বলেন, ‘আমি যতটুকু জানি, প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ইমপ্রেস টেলিফিল্ম ছবিটি জমা দিয়েছিল। এবারের জাতীয় পুরস্কার ঘোষণার কথা আজ (গতকাল) পত্রিকা পড়ে জানতে পারলাম। সেরা অভিনেতার পুরস্কার পাওয়া তারিক আনাম খানকে শুভেচ্ছাও জানালাম। অন্য যাঁরা পুরস্কার পেয়েছেন তাঁদের অভিনন্দন।’

‘আলফা’ কোনো ক্যাটাগরিতেই পুরস্কার পায়নি—এ বিষয়টি তুলতেই সশব্দে হেসে ওঠেন ‘একাত্তরের যীশু’ পরিচালক। বলেন, ‘আমার ছবিটি প্রথাগত নির্মাণের চলচ্চিত্র নয়। এটাকে বলা যেতে পারে ভিজ্যুয়াল কাব্য। জুরি বোর্ডে যাঁরা ছিলেন তাঁরা হয়তো ড্রামাকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন। হয়তো আমার ভিজ্যুয়াল কাব্য তাঁরা বুঝতে পারেননি। তবে এ নিয়ে আমার কোনো ক্ষোভ নেই।’

ক্ষোভ প্রকাশ না করলেও নাসির উদ্দীন ইউসুফ জানান, ‘আলফা’র প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করা দোয়েল ও আলমগীর কবীর দারুণ অভিনয় করেছেন। তাঁদের পুরস্কার পাওয়াটা উচিত ছিল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা