kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ১ ডিসেম্বর ২০২০। ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

সুমনের অদ্ভুত ইচ্ছাপত্র

রংবেরং প্রতিবেদক   

২৫ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সুমনের অদ্ভুত ইচ্ছাপত্র

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হঠাৎ অদ্ভুত এক ‘ইচ্ছাপত্র’ প্রকাশ করেছেন কবীর সুমন। যেখানে তিনি মৃত্যুর পর তাঁর সব সৃষ্টি ধ্বংস করতে কলকাতা পৌরসভাকে অনুরোধ জানিয়েছেন! ২৩ অক্টোবর নিজের প্যাডে হাতে লেখা একটি চিঠি ফেসবুকে পোস্ট করেন বাংলা আধুনিক গানের কিংবদন্তি শিল্পী। ‘সকলের অবগতির জন্য’ শিরোনামের লেখা ইচ্ছাপত্রে সুমন লিখেছেন, ‘আমার মৃতদেহ যেন দান করা হয় চিকিৎসাবিজ্ঞানের কাজে। কোনো স্মরণসভা, শোকসভা, প্রার্থনাসভা যেন না হয়। আমার সমস্ত পাণ্ডুলিপি, গান, রচনা, স্বরলিপি, রেকর্ডিং, হার্ড ডিস্ক, পেনড্রাইভ, লেখার খাতা, প্রিন্টআউট যেন কলকাতা পুরসভার গাড়ি ডেকে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয় সেগুলি ধ্বংস করার জন্য। আমার কোনও কিছু যেন আমার মৃত্যুর পর পড়ে না থাকে। আমার ব্যবহার করা সব যন্ত্র, বাজনা, সরঞ্জাম যেন ধ্বংস করা হয়। এর অন্যথা হবে আমার অপমান।’

তাঁর এমন মনোভাবের কোনো কারণ ব্যাখ্যা করেননি সুমন। এমনকি তাঁর সিদ্ধান্ত নিয়ে কাউকে মতামত দান থেকে বিরত থাকারও আহ্বান জানান ‘নাগরিক কবিয়াল’, ‘অনুগ্রহ করে মতামত দেবেন না। ভালমন্দ কিছু লিখবেন না। এটা এক প্রবীণ মানুষের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিজ্ঞপ্তি। অনেক অভিজ্ঞতার পর, অনেক ভেবেচিন্তে লিখেছি। অনুগ্রহ করে আবেগের বশবর্তী হবেন না, উপদেশ পরামর্শ দেবেন না।’

আরো লিখেছেন, ‘আমার জীবনে কোনও হতাশা, দুঃখ, ব্যর্থতাবোধ, অবসাদ নেই। আমি সানন্দে বেঁচে আছি। আমার কাজ করে যাচ্ছি।’

চিঠিতে তিনি অসুস্থ হলে বা মারা গেলে তাঁর বিষয়ে সব সিদ্ধান্ত গ্রহণের অধিকার দেন মৃন্ময়ী তোকদার নামের এক নারীকে।

তবে সুমন কাউকে মতামত না দিতে অনুরোধ করলে কী হবে, তাঁর ভক্তরা তা কোনোভাবেই মানছেন না। তাঁর সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে একের পর এক লেখা লিখে যাচ্ছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা