kalerkantho

শনিবার । ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৬ জুন ২০২০। ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

সা ক্ষা ৎ কা র

আমার সাবধানতা কাজে লেগেছে

দুই দিন ধরে গুজব রটেছে, অস্ট্রেলিয়ায় শাবনূর করোনায় আক্রান্ত। আসলেই কি তাই? শাবনূরের সঙ্গে অনলাইনে কথা বলেছেন সুদীপ কুমার দীপ

৫ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমার সাবধানতা কাজে লেগেছে

কেমন আছেন?

ঘরবন্দি দিন কাটছে। সপ্তাহে এক দিন বের হই বাজার করতে। পুরো সপ্তাহের বাজার করে আসি। খুব কাছের কেউ না হলে বাসায় আসা নিষেধ।

 

কত দিন ধরে এই রুটিন চলছে?

এক মাসের বেশি বলতে পারেন। আমি চায়না ও ইতালিতে করোনাভাইরাস ধরা পড়ার পর থেকেই সাবধানতা অবলম্বন করেছি। আইজানকে (ছেলে) বাসা থেকে বের হতে দেই না। ছোট বোন নূপুরকেও বলে দিয়েছিলাম তখন। পরিবারের সবাই এখন বলে, আমার সাবধানতা কাজে লেগেছে।

 

দু-তিন ধরে গুজব, আপনি করোনায় আক্রান্ত!

আমার কানেও এসেছে। এসব গুজব রটিয়ে মানুষ কী পায়! করোনা হলে নিজেই তো জানাতাম। এটা লুকিয়ে রাখার কী হলো? আমি পুরোপুরি সুস্থ। তবে হ্যাঁ, ভেতরে ভেতরে অনেক ভয় কাজ করছে।

 

অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান পরিস্থিতি কী?

অস্ট্রেলিয়া উন্নত দেশ। চিকিৎসাসেবাও ভালো। তার পরও মানুষের মধ্যে আতঙ্ক। ঘর থেকে কেউ বের হচ্ছে না। একদম ভূতুড়ে পরিবেশ। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। মারাও গেছে অনেক।

 

বাংলাদেশের খবর রাখেন?

অনেকের সঙ্গে কথা হয়। প্রথম দিকে ভেবেছিলাম, খুব একটা প্রভাব বাংলাদেশে পড়বে না। কিন্তু গতকাল যা শুনলাম তাতে খুব দুশ্চিন্তা হচ্ছে। আগে যেখানে দিনে তিন অথবা চারজন আক্রান্ত হয়েছে, সেখানে গতকাল নাকি ৯ জন! সাধারণ মানুষকে সরকার অনুরোধ করেছে বাসায় থাকতে। অথচ বেশির ভাগই তা শুনছে না। অস্ট্রেলিয়ায় নিত্যপ্রয়োজনীয় বাজার আর ওষুধ কেনা ছাড়া আমার জানা মতে কেউ বের হচ্ছে না। আর বাংলাদেশে নাকি সামান্য চা খাওয়ার জন্য মানুষ রাস্তায় নামছে!  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা