kalerkantho

শুক্রবার । ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৫ জুন ২০২০। ১২ শাওয়াল ১৪৪১

সাক্ষাৎকার

কোনো ঝুঁকি নিতে চাইনি

হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন পূর্ণিমা। কিভাবে দিন কাটছে জানতে কথা বলেছেন সুদীপ কুমার দীপ

১ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোনো ঝুঁকি নিতে চাইনি

বাসায় কেমন আছেন?

কখনো টানা এত দিন ছুটি পাইনি। একদিক থেকে ভালোই হয়েছে। পরিবারকে সময় দিতে পারছি। আমার মেয়ে আরশিয়া উমাইজা স্কুলে পড়ছে। অনলাইনে হোমওয়ার্ক করতে হয় তাকে। তাকে প্রতিনিয়ত সাহায্য করি। তা ছাড়া নতুন নতুন পদের রান্না করছি। খোশগল্পে মেতে উঠছি কখনো কখনো। এক কথায় বিরক্তি লাগছে না।

 

সকাল শুরু হয় কিভাবে?

সত্যি বলতে, রাতে দেরি করে ঘুমাতে যাওয়ার কারণে সকালে উঠতে পারি না। ঘুম ভাঙার পর চা করি। সেটা খেতে খেতে সারা দিন কী কী করব তার একটা পরিকল্পনা করি। মাঝে মাঝে আরশিয়ার সঙ্গে গেম খেলি।

 

কত দিন হলো বাসায় আছেন?

১৫ মার্চ থেকে বাসায় আছি। কোনো ঝুঁকি নিতে চাইনি। হাতে যে কাজগুলো ছিল সেগুলোর নির্মাতাদের সঙ্গে বোঝাপড়া করেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।

 

এই কদিনে কখনো ছাদে কিংবা বাসার নিচে নামেননি?

একদম না। আমি ও আমার পরিবার এ ব্যাপারে খুব সচেতন। মাঝে মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দরকার পড়লে কাজের লোককে বলি। সে দরজার সামনে রেখে যায়। আমি সেটা সংগ্রহ করে প্যাকেটটা আগে ভালোভাবে সাবান দিয়ে ধুয়ে নিই। তারপর ব্যবহার করি।

 

বিকেল বা সন্ধ্যায় কী করেন?

দিনের বেশির ভাগ সময় যায় রান্নাবান্না আর মেয়ের হোমওয়ার্ক করার পেছনে। তবে হ্যাঁ, সন্ধ্যার দিকে প্রতিদিন রুটিনমাফিক একটি করে ছবি দেখি। মাঝে-মধ্যে সংবাদও দেখা হয়। বাংলাদেশের পাশাপাশি বিশ্বের পরিস্থিতি জানার চেষ্টা করি।

 

ভক্তদের কিছু বলতে চান?

সবাই বাসায় থাকুন। নিরাপদে থাকুন। করোনা নিয়ে সরকারের দেওয়া নির্দেশাবলি মেনে চলুন। করোনাকে কোনোভাবেই অবহেলার চোখে দেখবেন না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা