kalerkantho

মঙ্গলবার । ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

কত সহজে এসিড মেলে

রংবেরং ডেস্ক   

১৭ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কত সহজে এসিড মেলে

এসিড হামলার শিকার হয়ে ভেঙে পরা, সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে জীবন সফল হওয়া—ভারতীয় তরুণী লক্ষ্মী আগারওয়ালের জীবনের এমন ঘটনা নিয়ে ‘ছপাক’ করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। গেল সপ্তাহে মুক্তি পাওয়া ছবিটির প্রচারণায় অভিনেত্রী বারবার বলেছেন, এসিড-সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দিতেই অভিনয়ের সঙ্গে ছবির প্রযোজক বনে গেছেন তিনি। দীপিকার মতে, ভারতে এসিড হামলার বড় কারণ দ্রব্যটির সহজলভ্যতা। এবার এক স্ট্রিং অপারেশনে অভিনেত্রী তথ্য-প্রমাণসহ তুলে ধরলেন ভারতে কত সহজে এসিড মেলে। দিন কয়েক আগে দীপিকার টিম এই অপারেশন চালায় দিল্লিতে। ভারতের রাজধানী শহর থেকে কোনো কাগজপত্র ছাড়াই ২৪ বোতল এসিড কিনতে সক্ষম হন তাঁরা। পুরো অভিযানটি গাড়িতে বসে ফোনে তদারকি করেন দীপিকা। অভিনেত্রীর টিমের সদস্যরা কেউ ড্রাইভার, ছাত্র, গৃহবধূ, নেশাখোর, গুণ্ডা নানা ছদ্মবেশে বিভিন্ন দোকানে এসিড কিনতে যায় এবং সফলও হয়। একটা মাত্র দোকান কেবল এসিড কেনার প্রয়োজনীয় কাগজ দেখতে চায়। স্ট্রিং অভিযানের এই ফল নিয়ে ক্ষুব্ধ দীপিকা। এই অপারেশনকে ‘সামাজিক পরীক্ষা’ হিসেবে অভিহিত করে এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘এভাবে নির্বিচারে বিক্রি না হলে কেউ এসিড হামলার শিকার হতো না।’ এ ছাড়া নারীদের আরো কঠোর হতে আহ্বান জানান অভিনেত্রী, “কেউ যদি প্রেমের প্রস্তাব দেয় আর আপনি ‘না’ বলেন, তা হলে গলার জোর বাড়ান। কেউ যদি হেনস্তা করে, তা হলে অধিকারের জন্য লড়াই করুন।”

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা