kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কক্সবাজারে সব্যসাচী-সুবর্ণার গণ্ডি

রংবেরং প্রতিবেদক   

২৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজারে সব্যসাচী-সুবর্ণার গণ্ডি

গতকাল বিকেলে কক্সবাজারের ওশান প্যারাডাইজ হোটেলের সামনে সুবর্ণা মুস্তাফা ও সব্যসাচী চক্রবর্তী

ভারতের জনপ্রিয় অভিনেতা সব্যসাচী চক্রবর্তী এখন বাংলাদেশে। ২৫ মার্চ রাতের ফ্লাইটে তিনি ঢাকায় এসে পৌঁছেন। গতকাল সকালেই উড়ে গেলেন কক্সবাজারে। এক দিন বিশ্রাম নিয়ে আজ থেকে তিনি সেখানে শুটিং করবেন ফাখরুল আরেফিনের ‘গণ্ডি’র। ‘ভুবন মাঝি’ পরিচালকের দ্বিতীয় ছবি এটি। ডিসেম্বরে যুক্তরাজ্যের পাঁচটি শহরে ছবিটির প্রাথমিক অংশের শুটিং হয়। কক্সবাজারে আজ শুরু হচ্ছে দ্বিতীয় ধাপের শুটিং। গতকাল দুপুরে মুঠোফোনে কথা হয় সব্যসাচী চক্রবর্তীর সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে যতবারই এসেছি, আতিথেয়তায় একেবারে ভেসে গেছি। এবারও তা-ই হচ্ছে। এত সম্মান আর এত ভালোবাসা পাচ্ছি, বলে বোঝাতে পারব না। মাঝে মাঝে নিজেরই সন্দেহ হয়, সত্যি কি এত সম্মান পাওয়ার যোগ্য আমি!’

ফাখরুল আরেফিন বলেন, ‘আমার ছবির গল্প পঞ্চাশোর্ধ্ব ও ষাটোর্ধ্ব দুই নারী-পুরুষকে ঘিরে। এই দুটি চরিত্রে অভিনয় করছেন সুবর্ণা মুস্তাফা ও সব্যসাচী চক্রবর্তী। এই বয়সের    নারী-পুরুষের বন্ধুত্ব নিয়ে সমাজের অন্যরা কী ভাবে, তা-ই দেখাব ছবিতে। প্রসঙ্গক্রমে বলে রাখি, ওয়ার্ক পারমিট নিয়েই বাংলাদেশে কাজ করতে এসেছেন সব্যসাচী দাদা। ৩১ মার্চ পর্যন্ত শুটিং করবেন।’

‘গণ্ডি’র চিত্রনাট্য লিখেছেন রেজা আরিফ। সুবর্ণা মুস্তাফা ও সব্যসাচী চক্রবর্তী ছাড়াও ছবির গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন অপর্ণা ঘোষ, মাজনুন মিজান ও লন্ডনপ্রবাসী বাঙালি মেয়ে ফিওনা। কক্সবাজার পর্ব শেষে আগস্টে ঢাকায় হবে ছবির শেষ অংশের দৃশ্যায়ন। সামনের বছর ছবিটি মুক্তি পাবে, জানালেন পরিচালক।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা