kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

নির্বাচনে সঞ্জু

রংবেরং ডেস্ক   

১৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নির্বাচনে সঞ্জু

বাবা সুনীল দত্ত তারকা অভিনেতা থেকে ঝানু রাজনীতিবিদ হয়ে গিয়েছিলেন। মুম্বাই থেকে কংগ্রেস পার্টির হয়ে লোকসভায় নির্বাচন করে জিতেছিলেন পাঁচবার। শেষবার দেশের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রীর দায়িত্বও ঘাড়ে নিয়েছিলেন। ২০০৫ সালে তাঁর মৃত্যুর পর রাজনীতিতে সক্রিয় হন বোন প্রিয়া দত্ত। তিনিও জিতেছেন দুইবার। শুধু সঞ্জয় দত্তই নির্বাচনে নামতে বাকি ছিলেন। অবশ্য ২০০৯ সালে সমাজবাদী পার্টি থেকে তাঁকে নির্বাচনের টিকিট দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় সেই পুরনো পাপ। ১৯৯৩ সালের মুম্বাই হামলার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে তখনো তাঁর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা চলছিল। নির্বাচনে মনোনয়ন দিতে না পেরে তাঁকে সাধারণ সম্পাদক পদটি দেয় দল। বছরখানেকের মধ্যে সেই পদ থেকেও ইস্তফা দিয়েছিলেন তিনি। পরে মামলাটির চূড়ান্ত রায় হয়েছে। পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করে নিজের পাপমোচনও করেছেন সঞ্জু। মাঝে একবার রাজনীতি করা নিয়ে বলেছিলেন, ‘আমি জানি না কেন রাজনীতিতে গিয়েছিলাম। ভুল করেছিলাম। আমার মনে হয় না অভিনয়শিল্পীদের জন্য এই জগৎ উপযুক্ত।’ কিন্তু লোকসভা নির্বাচন সামনে রেখে আবারও রাজনীতিতে নাম লেখাচ্ছেন ‘মুন্না ভাই’। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো তেমনটাই বলছে। নিবার্চন সামনে রেখে উত্তর প্রদেশের সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজ পার্টি জোট বেঁধেছে। সেই জোটের হয়েই গাজিয়াবাদ আসন থেকে লড়বেন সঞ্জয় দত্ত। মজার ব্যাপার হলো, বছর ছয়েক আগে এই জেলারই সত্যিকার কাহিনি থেকে বানানো ‘জিলা গাজিয়াবাদ’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা