kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

কাতারে হয়ে গেল নবম সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান

রংবেরং প্রতিবেদক   

১৭ নভেম্বর, ২০১৩ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাতারে হয়ে গেল নবম সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান

নবম সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে গাইছেন দেশবরেণ্য শিল্পীরা

১৫ নভেম্বর সন্ধ্যায় কাতারের দোহার আল আহলি স্টেডিয়ামে হয়ে গেল নবম সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠান। 'মানুষের জন্য গান' শিরোনামের এ আয়োজন ছিল ৫০ হাজার প্রবাসী দর্শক আর দুই শতাধিক শিল্পীর মিলনমেলা। ক্রিটিক ও পপুলার চয়েস মিলিয়ে মোট ১৮টি ক্যাটাগরিতে অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়। বরেণ্য সংগীতজ্ঞ সৈয়দ আবদুল হাদীকে দেওয়া হয় আজীবন সম্মাননা।

বিজ্ঞাপন

তাঁর হাতে পুরস্কার তুলে দেন ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেড ও চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর ও সিটিসেলের হেড অব করপোরেট কমিউনিকেশনস অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন তাসলিম আহমেদ, কাতারে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও কাতারের সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয়ের সচিব। অনুষ্ঠানে বিশেষ সম্মাননা দেওয়া হয় ভারত, ভুটান, নেপাল, মালদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কার শিল্পীদের। সৈয়দ আবদুল হাদী বলেন, 'বহু বছর ধরে গান করছি। তবে এই সম্মাননা আমার জীবনের একটি উল্লেখযোগ্য স্মৃতি হয়ে থাকবে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল আইয়ের পরিচালক আবদুর রশিদ মজুমদার, এনায়েত হোসেন সিরাজ, জহিরউদ্দিন মাহমুদ মামুন ও শাইখ সিরাজ, কাতারে অবস্থিত বিভিন্ন দেশের কর্মকর্তা ও কাতারে বাস করা বাংলাদেশের বিশিষ্ট নাগরিকরা।

অন্যান্য শাখায় পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন আজিজুর রহমান তুহিন [রবীন্দ্রসংগীত], ইয়াকুব আলী খান [নজরুলসংগীত], তাপস দত্ত [উচ্চাঙ্গসংগীত], চন্দনা মজুমদার [লোকসংগীত], ফাহমিদা নবী [আধুনিক], কোনাল [নবাগত শিল্পী], বাপ্পা মজুমদার [সংগীত পরিচালক], শফিক তুহিন [গীতিকার], 'হাওয়া হাওয়া' [ছায়াছবির গান, টেলিভিশন], সব্যসাচী হাজরা [কাভার ডিজাইন], হাবিব [সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার], এলআরবি [ব্যান্ড], শুভব্রত সরকার [মিউজিক ভিডিও নির্মাতা]। পপুলার চয়েস বিভাগে পুরস্কার পেয়েছেন হাবিব [আধুনিক], এলআরবি [সেরা ব্যান্ড], কোনাল [নবাগত শিল্পী], কানামাছি [ছায়াছবির গান, টেলিভিশন] ও শহীদ [ফিউশন]।

অ্যাওয়ার্ড প্রদানের ফাঁকে ফাঁকে ছিল দেশের নবীন-প্রবীণ শিল্পীদের নানা পরিবেশনা। অংশ নেন ভারত ও নেপালের শিল্পীরাও।

অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন ফারজানা ব্রাউনিয়া। পরিচালনা করেন শহিদুল আলম সাচ্চু।

 

 



সাতদিনের সেরা