kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ মাঘ ১৪২৮। ১৮ জানুয়ারি ২০২২। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

পোশাক ও বস্ত্র খাতের জন্য স্বতন্ত্র মন্ত্রণালয় চান উদ্যোক্তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তৈরি পোশাক ও বস্ত্র খাতের জন্য স্বতন্ত্র একটি মন্ত্রণালয় চান এ খাতের উদ্যোক্তারা। বস্ত্র দিবস উপলক্ষে গতকাল শনিবার আয়োজিত এক সম্মাননা অনুষ্ঠানে এই দাবি জানানো হয়েছে। জাতীয় বস্ত্র দিবস উপলক্ষে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এই সম্মাননা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

দুই বছর ধরে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও বস্ত্র ও পোশাক খাত সচল রাখা এবং কর্মসংস্থানে বিশেষ অবদান বিবেচনায় বিজিএমইএ, বিকেএমইএ, বিটিএমএসহ বস্ত্র ও পোশাক খাতের সাতটি সংগঠনকে সম্মাননা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী সংগঠনগুলোর সভাপতিদের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন।

বস্ত্র ও পোশাক খাতের জন্য স্বতন্ত্র মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠার দাবিসহ বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান কৃত্রিম আঁশের পোশাক উৎপাদনে বিভিন্ন কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক ছাড়ের দাবি করেন। বিকেএমইএর নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম বলেন, দেশের প্রধান রপ্তানি পণ্য এবং কর্মসংস্থানসহ বিভিন্ন খাত-উপখাতে বিশাল অবদান রাখছে বস্ত্র ও পোশাক। অথচ সরকারের পক্ষ থেকে এই খাতের নিরবচ্ছিন্ন সেবার জন্য কোনো মন্ত্রণালয় নেই। বস্ত্র অধিদপ্তর থেকে সেবা পেতে বিভিন্নভাবে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন তাঁরা। তাই বস্ত্র ও পোশাক খাতের জন্য স্বতন্ত্র একটি মন্ত্রণালয়ের দাবি জানান তিনি।

একই দাবি জানান বিটিএমএ সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন। আগামী বাজেটে বস্ত্র ও পোশাক খাতের জন্য ২৫ শতাংশ হারে প্রণোদনা দাবি করেন তিনি। টেরিটাওয়েল অ্যান্ড লিনেন ম্যানুফ্যাকচারারস অ্যান্ড এক্সপোর্টারস অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিটিএলএমইএ) সভাপতি এম শাহাদাত হোসেন স্থানীয় বাজার উপযোগী বস্ত্র ও পোশাক এবং টেরিটাওয়েল উৎপাদনে তুলা আমদানিতে শুল্কমুক্ত সুবিধার দাবি তোলেন। ২০১৯ সাল থেকে ৪ ডিসেম্বর জাতীয় বস্ত্র দিবস পালিত হচ্ছে দেশে।



সাতদিনের সেরা