kalerkantho

রবিবার । ৬ আষাঢ় ১৪২৮। ২০ জুন ২০২১। ৮ জিলকদ ১৪৪২

৫৫% খাদ্য উৎপাদন হলেও সংরক্ষণের ব্যবস্থা নেই

মনিরুজ্জামান মনির, সভাপতি, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি

রফিকুল ইসলাম, রাজশাহী   

৯ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৫৫% খাদ্য উৎপাদন হলেও সংরক্ষণের ব্যবস্থা নেই

কেবল আলাদা বাজেটই পারে রাজশাহী অঞ্চলের উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে—এমন মন্তব্য করে রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির বলেন, ‘অবহেলিত রাজশাহী অঞ্চলকে এগিয়ে নিতে আমরা প্রতিটি বাজেটেই আলাদা করে বিভাগীয় বাজেট ঘোষণার দাবি জানিয়ে আসছি। কিন্তু এটি বাস্তবায়িত হচ্ছে না। আমরা সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি, এই পদ্ধতি চালু করার। সেটি চালু করা সরকারের নীতি-নির্ধারকদের দায়িত্ব। আমরা আমাদের কথা বলছি। কিন্তু সরকার সেটি না শুনলে রাজশাহী অঞ্চল বরাবরের মতোই অবহেলার মধ্যেই থাকবে।’

কালের কণ্ঠকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি আরো বলেন, ‘আমরা এই অঞ্চলের উন্নয়নের জন্য বিভাগীয় বাজেট চেয়েছি। ৪৫টি দাবি জানিয়ে সরকারের নীতি-নির্ধারকদের কাছে আবেদনও করেছি। এগুলো বাস্তবায়ন হলে রাজশাহী অঞ্চলের উন্নয়ন ঘটবে। আর না হলে সুদূরপ্রসারী উন্নয়ন কখনোই সম্ভব হবে না।’

মনিরুজ্জামান বলেন, ‘কেবল রাজশাহী ও রংপুর বিভাগেই দেশের ৫৫ শতাংশ খাদ্য উৎপাদন হচ্ছে। কিন্তু এই খাদ্য সংরক্ষণের বৃহত্তর কোনো ব্যবস্থা নেই। কৃষিপণ্য সংরক্ষণের ব্যবস্থা করতে পারলে অভূতপূর্ব উন্নয়ন ঘটবে দুই বিভাগে। কিন্তু কৃষি নিয়ে সরকারের সুদূরপ্রসারী তেমন কোনো লক্ষ চোখে পড়ে না। কৃষিপণ্য পরিবহনের জন্য নৌপথ, রেলপথ এমনকি আকাশপথের যোগাযোগব্যবস্থা বৃদ্ধি করার দাবি জানিয়েছি। যোগাযোগব্যবস্থা বৃদ্ধি ছাড়া রাজশাহী বিভাগের উন্নয়ন কখনোই সম্ভব নয়। কিন্তু এই দিক থেকেই আমরা অনেক পিছিয়ে আছি।’

মনিরুজ্জামান বলেন, ‘বাজেটের সুষম বণ্টন হলেই রাজশাহীর উন্নয়ন সম্ভব। কিন্তু রাজশাহীর উন্নয়নে সেটিরও ঘাটতি বরাবরের মতোই থেকে যায়। এই অবস্থায় আমরা বাজেটের সুষম বণ্টনের দাবি জানাচ্ছি সরকারের প্রতি। কোনো অঞ্চলকে পিছিয়ে রেখে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। দেশের সার্বিক উন্নয়নের জন্য চাই সুষম অর্থনৈতিক বণ্টন।’