kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

সাপ্লাই চেন ব্যবস্থাপনা ঠিক রাখতে হবে

মো. মোস্তাফা হায়দার, সভাপতি, বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন

রোকন মাহমুদ   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাপ্লাই চেন ব্যবস্থাপনা ঠিক রাখতে হবে

করোনার মাঝে গত বছর পণ্য সরবরাহ করায় এ বিষয়ে আমাদের বেশ ভালোই অভিজ্ঞতা হয়েছে। ফলে এবার করোনার যে দ্বিতীয় ঢেউ আসছে তাতে অন্তত পণ্যের বাজারে সরবরাহ সমস্যা হবে না বলে আমি মনে করছি। সম্প্রতি কালের কণ্ঠকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোস্তাফা হায়দার। তিনি টি কে গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের গ্রুপ পরিচালক।

মোস্তাফা হায়দার বলেন, ‘গত বছর পরিস্থিতি যা ছিল এবার তেমনটি নয়। গত বছর আমাদের কাছে একেবারেই নতুন ছিল করোনা পরিস্থিতিটা। আতঙ্কও বেশি ছিল। তবে এবার মূল চ্যালেঞ্জটা হলো করোনার ধরনটা বোঝা যাচ্ছে না। ফলে এবার যদি খুব বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়ে পড়ে তাতে সে ক্ষেত্রে ব্যবসা-বাণিজ্যের ওপর কিছুটা প্রভাব পড়তে পারে। এ ক্ষেত্রে আশার কথা হলো সরকারও বোঝে কিভাবে সাপ্লাই চেন ব্যবস্থাপনা করতে হয়। আর আন্তর্জাতিক বাজার থেকে পণ্য সরবরাহ ব্যবস্থা এখন পর্যন্ত স্বাভাবিক রয়েছে। তেল-চিনিসহ কিছু পণ্যের দাম বেড়েছে চীনের অতিরিক্ত আমদানির ফলে। এ ক্ষেত্রে সরকারের সঙ্গে আমাদের সমন্বয়টা এবার খুব ভালো।’

তিনি বলেন, ‘বাড়তি যে সতর্কতা দরকার সরকারের পক্ষ থেকে তা নেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয় বিভিন্ন পণ্যের বাজারব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা করতে আমাদের প্রায়ই ডাকছে। তারা আমাদের কথা শুনছে। বিষয়গুলো বুঝতে পারছে। আসলে এটা ছাড়া অন্যভাবে বাজারব্যবস্থা ঠিক রাখা কঠিন হবে।’