kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

থমকে গেছে কাজুবাদাম রপ্তানি

রাশেদুল তুষার, চট্টগ্রাম   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



থমকে গেছে কাজুবাদাম রপ্তানি

২০১০ সালে বাংলাদেশ থেকে প্রথম কাঁচা কাজুবাদাম রপ্তানি করেন শাকিল আহমেদ তানভীর

এক একরের কারখানার ৪০ শতাংশ ব্যবহার করেই চলছিল উৎপাদন কার্যক্রম। ক্রেতাদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পেয়ে বাকি ৬০ শতাংশ জায়গায় ব্যবসা সম্প্রসারণের পরিকল্পনা প্রায় গুছিয়েই এনেছিলেন শাকিল আহমেদ তানভীর। কিন্তু আগ্রাসী করোনাভাইরাসের থাবায় সে পরিকল্পনা থমকে গেছে দেশের কাজুবাদাম শিল্পের অগ্রদূত এই তরুণ উদ্যোক্তার।

২০২০ সালে করোনার বিস্তারকালীন ব্যাবসায়িক ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে যখন সব কিছু গুছিয়ে আনছিলেন ঠিক সে সময়ে আবারও করোনাভাইরাসের ভয়াবহ রূপ এবং পরিস্থিতি সামাল দিতে নতুন করে লকডাউন কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি দাঁড় করিয়েছে তাঁকে। এই দুঃসময়ে একমাত্র সরকারের সহায়ক নীতি ও সুরক্ষা ব্যবস্থা টিকিয়ে রাখতে পারে রপ্তানির অন্যতম সম্ভাবনাময় খাত কাজুবাদাম শিল্পকে। ২০১০ সালে বাংলাদেশ থেকে প্রথম কাঁচা কাজুবাদাম রপ্তানি করেন শাকিল আহমেদ তানভীর। পরবর্তী সময়ে আরেকটু অগ্রসর হয়ে ২০১৫ সালের চট্টগ্রামের পতেঙ্গার ডেইলপাড়ায় গড়ে তোলেন বিশ্বমানের কাজুবাদাম প্রক্রিয়াকরণ কারখানা ‘গ্রিনগ্রেইন ক্যাশিও প্রসেসিং ইন্ডাস্ট্রি’।

করোনার থাবা কিভাবে সামাল দিচ্ছেন এমন প্রশ্নের জবাবে দেশের প্রথম কাজুবাদাম রপ্তানিকারক গ্রিনগ্রেইন ক্যাশিও প্রসেসিং ইন্ডাস্ট্রিজের প্রধান উদ্যোক্তা বলেন, ‘করোনা সংক্রমণের শুরুতে যখন লকডাউন দিল তখন দুই মাস কারখানা বন্ধ রেখেছিলাম। খোলার পর দেখি শ্রমিকদের ৩০ শতাংশই নেই। আমার এই কর্মীরা ছিল খুবই দক্ষ। সেই অভিজ্ঞতার আলোকে সামনের কঠোর লকডাউনে প্রয়োজনে কারখানা অভ্যন্তরে শ্রমিকদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করে হলেও শিল্পের প্রয়োজনে উৎপাদন প্রক্রিয়া সচল রাখা হবে।’

টানা দুই মাস বন্ধ রাখার পর উৎপাদনে যাওয়ার পর দেখি সারা বিশ্বে ফিনিশড প্রডাক্টের দাম কমেছে। আমার শ্রমিক কমে যাওয়ায় উৎপাদন অর্ধেকে নেমেছে। যেখানে আগে প্রতিদিন ৬০০ থেকে ৭০০ কেজি কাজুবাদাম প্রক্রিয়াজাত করা হতো সেখানে এখন ৩৩০ কেজি থেকে ৩৩৫ কেজিতে নেমে এসেছে।

অথচ কারখানা সম্প্রসারণের যে পরিকল্পনা সাজিয়েছিলেন তাতে এক একরের পুরো কারখানাটি উৎপাদনে এলে প্রতিদিন দুই টন করে মাসে ৬০০ টন কাজুবাদাম প্রক্রিয়াজাত করা যেত। এতে বছরে রপ্তানি ১০ গুণ বেড়ে এক কোটি ২৬ লাখ ডলারে উন্নীত করা যেত।

শাকিল আহমেদ জানান, কাজুবাদাম রপ্তানি করে বিলিয়ন ডলার রপ্তানি সম্ভব। বিশ্বে গত বছর কাজুবাদাম রপ্তানির বাজার ছিল প্রায় ছয় বিলিয়ন ডলার। এর ৬০ শতাংশই বা ৩.৬ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি করে ভিয়েতনাম। অথচ ১৯৮৮ সালে দেশটি প্রথম কাজুবাদাম চাষ শুরু করে। অন্যদিকে ভারতের অভ্যন্তরীণ চাহিদা বাড়তে থাকায় তাদের রপ্তানি কমছে। কিন্তু শিল্প বিকাশে পদে পদে বাধা। কৃষিমন্ত্রীর আন্তরিক সদিচ্ছায় গত ১৬ ফেব্রুয়ারি একনেকে কাজুবাদাম ও কফি চাষ উৎপাদন বাড়ানোর জন্য ২১২ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন হয়। বাংলাদেশে ব্যাংক সহায়ক ও স্পষ্টীকরণ নীতিমালা প্রণয়নের জন্য কাজ করছে। কিন্তু কাঁচা কাজুবাদাম আমদানিতে ডিটিআই (টোটাল ট্যাক্স ইনসিডেন্ট) ধরা আছে ৩৮ শতাংশ, যা আগে ছিল ৫৮ শতাংশ। কৃষিমন্ত্রীর ঐকান্তিক প্রচষ্টোয় ২০ শতাংশ কমানো হয়েছে। কিন্তু ভিয়েতনাম ও ভারতের মতো বিনা শুল্কে কাঁচা কাজুবাদাম আমদানির প্রক্রিয়াটি বাংলাদেশ রাজস্ব বোর্ডে (এনবিআর) আটকে আছে। অথচ আমদানি সহজীকরণ করা হলে বাংলাদেশ থেকে ২০২৫ সালের মধ্যে কাজুবাদাম রপ্তানি বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করা সম্ভব বলে মনে করেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

করোনাকালীন ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে সরকার বিশেষ প্রণোদনা তহবিল ঘোষণা করেছে। ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের জন্য সর্বোচ্চ ২০ হাজার কোটি টাকার তহবিল বরাদ্দ ছিল। অথচ এই তহবিলের খুবই ক্ষুদ্র একটি অংশ বিলি করা সম্ভব হয়েছে। কারণ হিসেবে শাকিল আহমেদ বলেন, ‘প্রণোদনার ঘোষণায় সবাই খুশি হয়েছিল। কিন্তু ব্যাংক পরিচিত ছাড়া কাউকে তহবিল দেয়নি। সরকারের তরফে ব্যাংককে দায় ছাড়া ঋণ দিতে বলা হলেও নিজ দায়িত্বে ঋণ আদায় করতে বলা হয়। এটা ভুল সিদ্ধান্ত ছিল। সরকারের উচিত করোনাকালীন বিজনেস কাউন্সিল গঠন করা। এর মাধ্যমে এমন দুর্যোগের সময়ে প্রত্যেকটি সেক্টরকে কিভাবে সুরক্ষা দেওয়া যায় তা নিশ্চিত করা যেত।’

লকডাউনের বিকল্প ভাবতে হবে। জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে কঠোর হতে হবে। তবে কোনোভাবেই মানুষের রুটি রুজি বন্ধ রাখা যাবে না। আমার কারখানায় শ্রমিকদের তিন বেলা খাবার দেওয়া হয়। সকালে নাশতা, দুপুরে ভাত আবার বিকেলে নাশতা। কোনো কারণে কারখানা বন্ধের প্রসঙ্গ এলে শ্রমিকদের মনে প্রথমেই তাদের নিত্যদিনের খাবারের দুশ্চিন্তা শুরু হয়। এবারও সরকার লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়ায় শ্রমিকরা আমাকে খাবারের অনিশ্চয়তার কথা প্রথমেই তুলে ধরে।