kalerkantho

মঙ্গলবার। ৫ মাঘ ১৪২৭। ১৯ জানুয়ারি ২০২১। ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সাক্ষাৎকার

ফ্রোজেন ফুড নিয়ে আসছে বসুন্ধরা

বসুন্ধরার স্ন্যাকস পণ্যের চাহিদা বেড়েছে ৭০ শতাংশ
জেড এম আহমেদ প্রিন্স, হেড অব বিজনেস ডেভেলপমেন্ট সেক্টর-এ, বসুন্ধরা গ্রুপ

৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফ্রোজেন ফুড নিয়ে আসছে বসুন্ধরা

বসুন্ধরার প্রতিটি পণ্যের প্রধান শর্ত গুণগত মান নিশ্চিত করা। তাই মানুষের কাছে এই প্রতিষ্ঠানের প্রতিটি পণ্যের চাহিদা রয়েছে। বসুন্ধরা গ্রুপের মালিকপক্ষ থেকে আমাদের সব সময় বলা হয়, আমরা নিজেরা যেটা খেতে পারব না, সেটা মানুষকে খাওয়াব না। সম্প্রতি কালের কণ্ঠকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পণ্যের মান নিয়ে এসব কথা বলেন বসুন্ধরা গ্রুপের সেক্টর-এ, বিজনেস ডেভেলপমেন্ট প্রধান জেড এম আহমেদ প্রিন্স। তিনি জানান, নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করার অঙ্গীকার নিয়ে ফ্রোজেন ফুডের বাজারে এবার বসুন্ধরা গ্রুপও আসছে।

তিনি বলেন, ‘দেশের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপ ২০১৩ সালে বাজারে খাদ্যপণ্য নিয়ে আসে। এর আগে বাজারে বড় বড় প্রতিষ্ঠান ছিল। আমরা মাত্র সাত বছরেই বাজারের শীর্ষ স্থানটি দখল করে নিয়েছি। যারা দীর্ঘ ২০-২৫ ধরে ব্যবসা করছে তাদের জায়গাটি আমরা নিয়ে নিয়েছি। কারণ, বসুন্ধরা পণ্যের মানে কোনো ছাড় দেয় না। তাই এই ব্র্যান্ডের পণ্যে মানুষের আস্থাও অনেক বেশি। বর্তমানে বাজারে বসুন্ধরা গ্রুপের ২৪টি খাদ্যপণ্য পাওয়া যাচ্ছে। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে স্ন্যাকস আইটেমের চাহিদা ব্যাপক বেড়েছে। করোনায় স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় বসুন্ধরার স্ন্যাকস আইটেমগুলোর ৭০ শতাংশ চাহিদা বেড়েছে।’

জেড এম আহমেদ প্রিন্স বলেন, ‘দেশের মানুষের নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে বসুন্ধরা গ্রুপ ফ্রোজেন ফুডসহ আরো বেশ কিছু নতুন পণ্য বাজারে নিয়ে আসবে। সামনে আমাদের ফ্রোজেন ফুড নিয়ে পরিকল্পনা রয়েছে। আমরা প্রথমে ময়দা দিয়ে তৈরি ফ্রোজেন খাবারগুলো দিয়ে শুরু করব। কারণ আমাদের ময়দার নিজস্ব মিল রয়েছে। যেমন ফ্রোজেন পরোটা, সমুচা, শিঙাড়া, স্প্রিং রোলসহ ময়দা দিয়ে যেসব ফ্রোজেন ফুড তৈরি হয় সব ধরনের আইটেম নিয়ে আসব। তারপর যাব চিকেন নাগেটস, চিকেন সসেজসহ এই ধরনের বিভিন্ন আইটেমে।’

বসুন্ধরা খাদ্যপণ্যের মাঝে আমাদের কমোডিটি ও স্ন্যাকস এই দুই ধরনের আইটেম রয়েছে। কমোডিটি আইটেমের মধ্যে আটা, ময়দা, সুজি, তেল, সেমাই, মুড়ি, টমেটো সস। স্ন্যাকস আইটেমের মধ্যে ইনস্ট্যান্ট নুডলস, স্টিক নুডলস, ম্যাকারোনি, চিপস। বেকারি আইটেমের মধ্যে রয়েছে বসুন্ধরা রুটি, ক্রিম রোল ইত্যাদি।

তিনি বলেন, বসুন্ধরার যেসব নতুন খাদ্যপণ্য বাজারে আসবে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে কেক, ড্রাই কেক, টোস্ট, বিস্কুট, চানাচুর, মাফিন, বান, কুকিজ, মসলা, ডাল, বেসন, কাপ নুডলস, ড্রাই বা কুক নুডলসসহ বেশ কয়েকটি পণ্য।

সাক্ষাৎকার নিয়েছেন সজীব আহমেদ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা