kalerkantho

শনিবার । ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৬ জুন ২০২০। ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

গুণগত মানে কোনো আপস নেই

জাহেদ আলী আনছারী
ব্যবস্থাপনা পরিচালক, কেরু অ্যান্ড কম্পানি

৮ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গুণগত মানে কোনো আপস নেই

কেরু অ্যান্ড কম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) জাহেদ আলী আনছারী বলেন, ‘কেরু অ্যান্ড কম্পানি যা উৎপাদন করে তার গুণগত মান খুব ভালো। কেরু স্পিরিট উৎপাদন করে। আর কেরুর স্পিরিট মানেই বেস্ট কোয়ালিটি। হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ক্ষেত্রেও কোনো আপস করা হয়নি। তা ছাড়া হ্যান্ড স্যানিটাইজারের প্রধানতম কাঁচামাল হলো স্পিরিট। ৭০ শতাংশের কম দিয়েও তৈরি করা যায়, কিন্তু তাতে গুণগতমান ভালো হবে না। গুণগতমানের সঙ্গে আমাদের কোনো আপস নেই। স্যানিটাইজারের নাম রাখা হয়েছে কেরুজ হ্যান্ড স্যানিটাইজার। স্যানিটাইজার তৈরিতে স্পিরিট, গ্লিসারিন, পানি, রং ও সুগন্ধি ব্যবহার করা হয়। তাই আমাদের হ্যান্ড স্যানিটাইজারের চাহিদা বেশি।’

তিনি বলেন, ‘এখন দুঃসময় চলছে। বাণিজ্য করার জন্য আমরা স্যানিটাইজার বাজারে ছাড়িনি। স্যানিটাইজার এখন খুবই জরুরি একটি পণ্য। করোনাভাইরাস থেকে মানুষকে সুরক্ষা দেওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে আমরা স্যানিটাইজার উৎপাদন ও বাজারজাত করছি। ২৩ মার্চ থেকে আমাদের স্যানিটাইজার বাজারে গেছে। ওই দিন বাজারে দেওয়া সম্ভব হয়েছে মাত্র তিন হাজার বোতল। এখন উৎপাদন হচ্ছে প্রতিদিন ১০ হাজার বোতল। এক বোতলে থাকছে ১০০ মিলিলিটার স্যানিটাইজার। প্রতি বোতল পাইকারি দাম ৫০ টাকা। খুচরা বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা করে। বৈধ ওষুধ বিক্রির প্রতিষ্ঠান আমাদের বিক্রয়কেন্দ্র থেকে পাইকারি কিনতে পারবে। চুয়াডাঙ্গার মিলগেট থেকেও কেনা যাবে। আমাদের হাতে এখনো অনেক চাহিদা রয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী আমরা সরবরাহ করার চেষ্টা করছি। দেশের বাইরে থেকেও চাহিদা এসেছে। উৎপাদন বাড়ানোর চেষ্টাও চলছে। প্রতিদিন অন্তত ১৫ হাজার বোতল উৎপাদন করার ইচ্ছা আছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা