kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

অর্ধশত বছর আগের ভাড়া পরিশোধ

রাজবাড়ীতে বিনা টিকিটে রেলভ্রমণ

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অর্ধশত বছর আগের ভাড়া পরিশোধ

রাজবাড়ীতে ট্রেনের টিকিটের রসিদ নিচ্ছেন নওশের আলী শেখ। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজবাড়ীতে সততার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন নওশের আলী শেখ (৭১) নামের এক ব্যক্তি। কলেজজীবনে বিনা টিকিটে রেলভ্রমণের পাঁচ হাজার টাকার বকেয়া ভাড়া পরিশোধ করেছেন তিনি। গতকাল শনিবার সকালে রাজবাড়ী রেলস্টেশনে এসে অর্ধশত বছর আগের রেলভ্রমণের বকেয়া ভাড়া পরিশোধ করেন সাবেক এই কৃষি কর্মকর্তা।

এর আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এ ধরনের সততার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন দুদকের সাবেক কনস্টেবল এমদাদুল হক।

বিজ্ঞাপন

সে সময় বিষয়টি নিয়ে বেশ আলোচনা হয়।

জানা গেছে, উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে দীর্ঘ কর্মজীবনের সমাপ্তির পর এখন অবসর জীবন যাপন করছেন নওশের আলী শেখ। ১৯৬৯ সালে এসএসসি পরীক্ষায় পাস করার পর তিনি ভর্তি হন রাজবাড়ী সরকারি কলেজে। তখন ট্রেনযাত্রী হিসেবে নিয়মিত রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের বেতেঙ্গা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে পাশের আড়কান্দি স্টেশন হয়ে কলেজে আসা-যাওয়া করতেন তিনি। ছাত্র থাকা অবস্থায় কখনো ট্রেনের টিকিট কেটেছেন, আবার কখনো কাটেননি। জীবনের শেষ সময়ে এসে এ নিয়ে আত্মগ্লানি পেয়ে বসেছে তাঁকে।

এ কারণে ছাত্রাবস্থায় ট্রেনে যাতায়াতের বকেয়া ভাড়া হিসাব করে আনুমানিক একটি অঙ্ক নিজেই নির্ধারণ করেছেন, যাঁর পরিমাণ দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার টাকা। গতকাল সকালে ওই টাকা নিয়ে তিনি রাজবাড়ী রেলস্টেশনে আসেন। পরে রেলস্টেশন মাস্টারের সহযোগিতায় ট্রেনের টিকিট কালেক্টর মোকলেছুর রহমান সাগরের হাতে টাকা তুলে দেন। একই সঙ্গে ওই টাকার সমমূল্যের টিকিট গ্রহণ করেন নওশের আলী শেখ।

ট্রেনের টিকিট কালেক্টর মোকলেছুর রহমান সাগর বলেন, ‘বিষয়টা ব্যতিক্রমী। এর আগে টিকিট না কাটা অনেকেই তাঁদের কাছে স্বল্প পরিমাণ অর্থ ফেরত দিয়েছেন। তবে নওশের আলী শেখের মতো এত টাকা ভাড়া কেউ পরিশোধ করেননি। ’

রাজবাড়ী রেলস্টেশন মাস্টার তন্ময় দত্ত বলেন, ‘তাঁর বকেয়া পরিশোধের বিষয়টি আমি সাদরে গ্রহণ করেছি। একই সঙ্গে ভাড়া পরিশোধের পুরো কার্যক্রমে সহায়তা করেছি। ’

 

 

 



সাতদিনের সেরা