kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সদস্যদের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সদস্যদের অভিযোগ

কখনো জমি দখল, কখনো চাল চুরি আবার কখনো অবৈধভাবে পুকুর খনন করে বারবার বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার দেলুয়াবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রিয়াজুল ইসলাম। অবৈধভাবে পুকুর খনন করতে গিয়ে জেলেও খেটেছেন দুইবার। সর্বশেষ গরিবের চাল আত্মসাতের অভিযোগে আবার গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছেন। এবার তাঁর নানা অপকর্ম তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওই ইউনিয়নের আটজন সদস্য।

বিজ্ঞাপন

গতকাল বুধবার সকালে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারম্যানের নানা অভিযোগ তুলে ধরেন ইউপি সদস্যরা।

ইউপি সদস্য আবুল বাশার বলেন, ‘চেয়ারম্যান রিয়াজুল জিআরের চাল আত্মসাৎ করেছেন। এ চাল গরিবদের মধ্যে বিরতরণ করার কথা ছিল; কিন্তু সেটি না করে তিনি গোপনে চার টন চাল বিক্রি করে দিয়েছেন। তা ছাড়া তিনি অবৈধ পুকুর খনন, পুকুরের ডিড জালিয়াতিসহ মাদক মামলার আসামি একজন মেম্বারকে জামিনে মুক্তির জন্য জীবিত মায়ের মৃত্যু সনদ দেন। ’

তিনি আরো বলেন, চেয়ারম্যান রিয়াজুল ইসলাম ২০১৬ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত সময়ে ১২ জন ইউপি সদস্যের মাসিক ভাতা ১৮ লাখ ৪৮ হাজার টাকা আত্মসাত করেছেন। যার অভিযোগ জেলা প্রশাসক দপ্তরে দেওয়া আছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন দেলুয়াবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য তাজুল ইসলাম, খলিলুর রহমান, আফসার আলী, আবুল খায়ের, রহিদুল ইসলাম, সবেদা খাতুন ও লাবনী খাতুন।

রিয়াজুল ইসলাম উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন; কিন্তু নানা অপকর্মের কারণে তাঁকে বহিষ্কার করা হয় সংগঠন থেকে। তার পরও প্রভাব খাটিয়ে তিনি একের পর এক অপকর্ম করেই চলেছেন বলে অভিযোগ করেছেন ইউপি সদস্যরা।

 



সাতদিনের সেরা