kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

হবিগঞ্জ

গণপূর্তের দুই প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

ঠিকাদারকে মেরামতকাজ পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে অর্থ নিয়েও কাজ দিতে ব্যর্থ হন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

২০ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হবিগঞ্জ গণপূর্ত বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো. মাহবুব আলম শামীম ও উপসহকারী প্রকৌশলী সৌমেন বর্ধনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলীসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেছেন হবিগঞ্জ শহরের মাহমুদাবাদ এলাকার ফুল মিয়া নামের এক ঠিকাদার। অভিযোগে প্রকাশ, তাঁরা সম্প্রতি এক ঠিকাদারকে মেরামতকাজ পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে অর্থ নিয়েও কাজ দিতে ব্যর্থ হন। পরে টাকা ফেরত না দিয়ে হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আতাউর রহমান সেলিম দুই প্রকৌশলী ও ঠিকাদারকে নিয়ে সালিসের মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তি করেন।

বিজ্ঞাপন

গণপূর্তের ওই দুই প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে অভিযোগে আরো জানা যায়, জাল প্রত্যয়ন তৈরি, কাজের জন্য টাকা নিয়ে ঠিকাদারের টাকা আত্মসাৎ, নিয়মিত গাড়িচালক থাকার পরও আউটসোর্সিংয়ে চালক নিয়োগ দিয়ে তাঁদের নামে অতিরিক্ত বেতন ও ওভারটাইম প্রদান ও সরকারি বাসা কাগজ-কলমে বরাদ্দ না দিয়ে মাসোহারা নিয়ে আত্মসাৎ করেছেন তাঁরা।

অভিযোগে প্রকাশ, গণপূর্ত বিভাগে দুটি গাড়ি আছে। একজন নিয়মিত চালকও আছেন সেখানে। কিন্তু আউটসোসিংয়ে আরো তিনজন গাড়িচালক নিয়োগ দিয়ে তাঁদের বেতন-ভাতার বিপুলপরিমাণ টাকা আত্মসাৎ করা হয়। এ ছাড়া সরকারি আবাসনে কর্মচারীদের নামে কোনো বাসা কাগজপত্রে বরাদ্দ না দিয়ে মাসে ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে তাঁদের ব্যবহারের সুযোগ করে দিচ্ছেন ওই দুই প্রকৌশলী।

এদিকে মাহবুব আলম শামীমের নির্দেশে লগ বুক ছাড়াই গাড়ি চালানো হয় বলে চালক আব্দুল করিম জানিয়েছেন। ওই প্রকৌশলী প্রতি সপ্তাহে সরকারি গাড়ি ব্যবহার করে তাঁর গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বৃহস্পতি, শুক্র ও শনিবার যান বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মাহবুবুল আলম শামীম ও উপসহকারী প্রকৌশলী সৌমেন বর্ধনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁরা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।



সাতদিনের সেরা