kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ অক্টোবর ২০২২ । ২১ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

রেলের টিকিট কালোবাজারি কর্মী বরখাস্ত

সিলেট অফিস   

১৯ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ট্রেনের টিকিট কালোবাজারির অভিযোগে সিলেট রেলওয়ে স্টেশনের বুকিং সহকারী মো. সুজন মিয়া এবং বিআরটিসির কদমতলী কাউন্টার ব্যবস্থাপক রুমেল আহমদকে আটক করে র‌্যাব। বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাঁদের আটক করার পর বুকিং সহকারীর বিরুদ্ধে রেল কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেওয়ায় তাঁকে ছেড়ে দিয়ে আটক রুমেলের বিরুদ্ধে মামলা করে র‌্যাব।

সিলেটের দক্ষিণ সুরমার বরইকান্দি সুনামপুরের বাসিন্দা রুমেল বিআরটিসির কদমতলী কাউন্টারের ব্যবস্থাপক।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সিলেট রেলওয়ে স্টেশনে টিকিট কালোবাজারিদের ধরতে অভিযানে নামে র‌্যাব-৯।

বিজ্ঞাপন

এ সময় রেলস্টেশনের কাউন্টারে টিকিট পাওয়া না গেলে চড়া দামে বাইরে থেকে টিকিট সংগ্রহের চেষ্টা করে র‌্যাব। ফাঁদে পা দিয়ে আটক হন সুজন ও রুমেল।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‌্যাব-৯-এর মেজর আরাফাত আলী খান। তিনি এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে সুজন ও রুমেল টিকিট কালোবাজারে বিক্রি করে আসছেন। আমরা গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাঁদের আটক করি। বিষয়টি রেল কর্তৃপক্ষকে অবগত করার পর তাঁরা বুকিং সহকারী মো. সুজন মিয়াকে সাময়িক বরখাস্ত করেন। তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম শুরু করলে সরকারি কর্মচারী হওয়ায় তাঁকে আমরা ছেড়ে দিই। তবে বিআরটিসির কদমতলী কাউন্টার ব্যবস্থাপক রুমেল আহমদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ সময় তাঁর কাছ থেকে চারটি টিকিট জব্দ করা হয়েছে। ’

টিকিট কালোবাজারির সঙ্গে জড়িত রুমেলের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে সিলেট রেলওয়ে স্টেশন থানায় মামলার পর হস্তান্তর করা হয়েছে বলে র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

অভিযুক্ত বুকিং সহকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়টি কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন সিলেট রেলওয়ে স্টেশনের ব্যবস্থাপক মো. নুরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘বিভাগীয় ব্যবস্থা হিসেবে বুকিং সহকারী সুজন মিয়াকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ’



সাতদিনের সেরা