kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০২২ । ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সোনাগাজী

গাছ কেটে নিলেন জনপ্রতিনিধিরা

অভিযোগ ইউপি সদস্য ও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে

সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি   

১১ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফেনীর সোনাগাজীতে আবদুল হাই মিস্টার নামে এক ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে এলজিইডির সড়কের দুই পাশের অর্ধশতাধিক গাছ কেটে নেওয়া হয়েছে। চেয়ারম্যানের নির্দেশে গাছগুলো ইউপি সদস্য কেটেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গাছগুলোর মূল্য পাঁচ লক্ষাধিক টাকা বলে জানা গেছে। সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের ডাকবাংলা-আমির উদ্দিন মুন্সিরহাট সড়কের বড় পোল থেকে আল হেরা একাডেমি পর্যন্ত অংশে এই ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

এলাকাবাসী, এলজিইডি অফিস ও বন বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা রেঞ্জ কর্মকর্তা রিয়াজ উদ্দিন আহমেদের যোগসাজশে আমিরাবাদ ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য আবদুল হাই মিস্টারের নেতৃত্বে কয়েকজন দুর্বৃত্ত বিনা টেন্ডারে গাছগুলো কেটে নেন। এর মধ্যে কিছু গাছ ডাকবাংলোর কয়েকটি করাতকলে লুকিয়ে রাখা হয়েছে। কিছু গাছ জব্দ করে ইউনিয়ন পরিষদের সামনে রাখা হয়েছে।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের সোনাগাজী উপজেলা প্রকৌশলী মনির হোসেন খান বলেন, গাছগুলো স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের মালিকানায় রয়েছে। গাছগুলো নিলাম দিতে হলে স্থানীয় সরকার বিভাগ বন বিভাগকে অবহিত করবে। বন বিভাগ বিধিমোতাবেক টেন্ডারের ব্যবস্থা করবে। কিন্তু সরকারি ছুটির দিন ও রাতের আঁধারে সরকারি গাছ লুটের বিষয়টি তিনি শুনেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম মঞ্জুরুল হক বলেন, ‘সম্প্রতি আমিরাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান ওই সড়কের পাশে কিছু গাছ ঝুঁকিপূর্ণ রয়েছে বলে একটি আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলা রেঞ্জ কর্মকর্তাকে তদন্ত করে ঝুঁকিপূর্ণ গাছের তালিকা করার জন্য মৌখিক নির্দেশ দিয়েছিলাম। কিন্তু কাউকে গাছ কাটার নির্দেশ দেওয়া হয়নি। ’

ইউপি সদস্য আবদুল হাই মিস্টার বলেন, ‘আমি চেয়ারম্যানের নির্দেশে গাছগুলো কাটিয়েছি। ’

এ ব্যাপারে আমিরাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল হক হিরণ বলেন, ‘উপজেলা রেঞ্জ কর্মকর্তার মৌখিক নির্দেশে গাছগুলো কেটে ইউনিয়ন পরিষদের সামনে রাখা হয়েছে। ’

উপজেলা রেঞ্জ কর্মকর্তা রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ জানান, ঝুঁকিপূর্ণ গাছের পাশাপাশি বেশ কিছু ঝুঁকিমুক্ত গাছও কাটা হয়েছে।

ফেনী জেলা বন কর্মকর্তা মাকসুদ আলম বলেন, ‘এভাবে গাছ কাটার কোনো নিয়ম নেই। ’



সাতদিনের সেরা