kalerkantho

শনিবার । ২০ আগস্ট ২০২২ । ৫ ভাদ্র ১৪২৯ । ২১ মহররম ১৪৪৪

পৌর কাউন্সিলরের নেতৃত্বে ব্যবসায়ীর বাড়ি ভাঙচুর

নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

৫ জুলাই, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



 পৌর কাউন্সিলরের নেতৃত্বে ব্যবসায়ীর বাড়ি ভাঙচুর

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে কাউন্সিলর সুমনের নেতৃত্বে গত রবিবার ব্যবসায়ীর বাড়ি ভাঙচুর। ছবি : কালের কণ্ঠ

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাখাওয়াত হোসেন সুমনের বিরুদ্ধে রবিবার ভোররাতে পৌর এলাকার হরিপুর গ্রামের এক ব্যবসায়ীর বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সেই ঘটনার পর থেকে পরিবারটি জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

এই ঘটনায় নিরাপত্তা চেয়ে রবিবার ভুক্তভোগী পরিবার থানাসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ব্যবসায়ী আবুল কালাম আজাদ ৩০ বছর ধরে পৌর এলাকার হরিপুর গ্রামের আজাদ মঞ্জিলে বসবাস করে আসছেন।

বিজ্ঞাপন

ওই বাড়ি নির্মাণ করার সময় আবুল হাশেমের কাছ থেকে চলাচলের রাস্তার জন্য আড়াই শতক জমি ক্রয় করেন তিনি। তবে সেই সময়ে আবুল হাসেম প্রবাসে থাকার কারণে জমিটি রেজিস্ট্রি করা সম্ভব হয়নি। পরে জমিটি রেজিস্ট্রি না দিয়ে তাঁকে নানাভাবে হয়রানি করা হয়।

সম্প্রতি ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী এ ব্যাপারে স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর শাখাওয়াত হোসেন সুমনের কাছে বিষয়টি সমাধানের জন্য যান। সুমন বিষয়টি সমাধানের নামে কৌশলে আবুল হাশেমের কাছ থেকে চলাচলের রাস্তাটি রেজিস্ট্রি করে নেন।

সর্বশেষ রবিবার ভোররাতে কাউন্সিলরের নেতৃত্বে শতাধিক ব্যক্তি আজাদের বাড়ির গেট, সীমানাপ্রাচীর ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দেয়াল ভাঙচুর করেন।

সেই সময় জাতীয় জরুরি সেবা নম্বরে কল করা হলেও কাউন্সিলর সুমন প্রভাবশালী হওয়ায় রহস্যজনক কারণে দীর্ঘ সময়েও নাঙ্গলকোট থানা পুলিশ তাদের সহায়তায় এগিয়ে আসেনি বলে দাবি ভুক্তভোগী পরিবারের। এই ঘটনার পর থেকে ব্যবসায়ী আবুল কালাম আজাদ ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

অভিযুক্ত কাউন্সিলর শাখাওয়াত হোসেন সুমন বলেন, ‘জমিটি আমি ক্রয় করেছি। তারা আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। ’

নাঙ্গলকোট থানার ওসি ফারুক হোসেন বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি, তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ’

 



সাতদিনের সেরা