kalerkantho

শনিবার । ২০ আগস্ট ২০২২ । ৫ ভাদ্র ১৪২৯ । ২১ মহররম ১৪৪৪

দিনাজপুরে মৃত্যু বেশি

রংপুর বিভাগে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের হিসাব

নজরুল ইসলাম রাজু, রংপুর   

১ জুলাই, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দিনাজপুরে মৃত্যু বেশি

জানুয়ারি ২০২১ থেকে মে ২০২২ পর্যন্ত হ সূত্র : পুলিশের রংপুর রেঞ্জ

রংপুর বিভাগের আট জেলার সড়ক-মহাসড়কে দুর্ঘটনায় গত ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২২ সালের মে পর্যন্ত ৪৩০ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে সব চেয়ে বেশি নিহত হয়েছে দিনাজপুরে। পুলিশ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

পুলিশের রংপুর রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) দেবদাস ভট্টাচার্য জানান, গত দেড় বছরে রংপুর বিভাগে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে ৩৪৫টি।

বিজ্ঞাপন

এর মধ্যে প্রাণ হারায় ৪৩০ জন। আহত তিন শতাধিক। এর মধ্যে বাস দুর্ঘটনায় ১৬০, মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ১৪৩ ও ট্রাক দুর্ঘটনায় ১৩০ জন নিহত হয়। এই সময়ে ৬০ হাজার মোটরসাইকেলের বিরুদ্ধে মামলা ও জরিমানা করা হয়েছে।

তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ২০২১ সালে রংপুর জেলায় ৬২ জন নিহত হয়, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে ২২ জন। দিনাজপুরে ৬৯ জন নিহত, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে ৩০ জন। গাইবান্ধায় নিহত ৪০ জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে ১২ জন। নীলফামারীতে ২১ জন নিহত, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে ছয়জন। লালমনিরহাটে নিহত ২২ জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে পাঁচজন। কুড়িগ্রামে নিহত ১৫ জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে তিনজন। ঠাকুরগাঁওয়ে নিহত ২৫ জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে ১২ জন। পঞ্চগড়ে নিহত ২০ জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে ১১ জন।

আর ২০২২ সালের মে পর্যন্ত রংপুর জেলায় ৩০ জন নিহত, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে ৯ জন। দিনাজপুরে নিহত ৭৫ জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে ১৫ জন। গাইবান্ধায় নিহত ১৫ জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে ছয়জন। নীলফামারীতে নিহত ছয়জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে দুজন। লালমনিরহাটে নিহত পাঁচজন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে দুজন। কুড়িগ্রামে নিহত তিনজন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে একজন। ঠাকুরগাঁওয়ে নিহত ১০ জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে চারজন। পঞ্চগড়ে নিহত ১২ জন, এর মধ্যে মোটরসাইকেলে তিনজন।

এ বিষয়ে মিঠাপুকুরের শঠিবাড়ীর রেজাউল করিম জানান, বেপরোয়া গাড়ির কারণে প্রতিদিন দুর্ঘটনা ঘটছে।

পাগলাপীর এলাকার রহিদুল ইসলাম জানান, পুলিশ সড়ক নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না।

বাসচালক মোস্তাক মিয়া জানান, ওভার টেকিং থামাতে হবে। মহাসড়কের দুই ও তিন চাকার যানবাহন চলতে দেওয়া যাবে না।

রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের কর্মচারী সাদ্দাম হোসেন জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে প্রতিদিন গড়ে ৫০ জন রোগী ভর্তি হয়।

রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) মোস্তফা জামান চৌধুরী জানান, হাসপাতালে আহত রোগী ভর্তির সংখ্যা বাড়ছে। দুর্ঘটনায় অনেকে পঙ্গু হচ্ছে। মানুষকে সচেতন হতে হবে।

 

 



সাতদিনের সেরা