kalerkantho

রবিবার । ১৪ আগস্ট ২০২২ । ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৫ মহররম ১৪৪৪

বাঁশখালী

হাতির মৃত্যুতে বন বিভাগের মামলা, আসামির জিডি

৭০ হাজার টাকা দাবি করেন মামলার বাদী। ওই টাকা না দেওয়ায় তাঁদের মামলায় আসামি করা হয়েছে

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৩০ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে হাতির মৃত্যু নিয়ে বন বিভাগের মামলার ঘটনায় বাদীর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ এনে আদালতে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে আসামির পক্ষে। গত মঙ্গলবার বাঁশখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঈনুল ইসলামের আদালতে এই জিডি করেন আসামি কুতুব উদ্দিনের (৪৫) ভাই মো. মহিউদ্দিন। তাঁরা উপজেলার কালীপুর ইউনিয়নের পূর্ব গুনাগরী গ্রামের আবুল কাশেম ওরফে লাতুর ছেলে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, গত ১১ জুন পূর্ব গুনাগরী গ্রামের সাহেব মিয়ার পাহাড়ে একটি বন্য হাতি মারা যায়।

বিজ্ঞাপন

হাতিটিকে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে হত্যা করা হয়েছে অভিযোগ এনে গত ২৩ জুন ওই গ্রামের কুতুব উদ্দিনকে প্রধান আসামি করে মামলা করেন কালীপুর রেঞ্জের সাধনপুর বনবিটের কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন। তবে মামলার বাদীকে ঘুষ না দেওয়ায় প্রকৃত অপরাধীকে আসামি না করে নিরপরাধ ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে অভিযোগ এনে ওই ঘটনায় আদালতে জিডি করেন মহিউদ্দিন।

এ ছাড়া পরের দিন বুধবার প্রধানমন্ত্রী, আইনমন্ত্রী, বন ও পরিবেশমন্ত্রী এবং বন বিভাগের বিভিন্ন কর্মকর্তা বরাবর বন বিভাগের ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেন তিনি। এতে বলা হয়, ডেইরি ফার্মের মালিক কুতুব উদ্দিন ও কৃষক নূরুল ইসলামের কাছে ৭০ হাজার টাকা দাবি করেন মামলার বাদী। ওই টাকা না দেওয়ায় তাঁদের মামলায় আসামি করা হয়েছে।

 

 



সাতদিনের সেরা