kalerkantho

শুক্রবার । ১২ আগস্ট ২০২২ । ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৩ মহররম ১৪৪৪

আ. লীগের পরাজিত প্রার্থীকে মারধর

টাঙ্গাইল

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   

২৮ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার আটিয়া ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থী কৃষ্ণকান্ত দে সরকারকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে দলটির অন্য পক্ষের লোকজনের বিরুদ্ধে। তাঁকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল রবিবার বিকেলে উপজেলার ছিলিমপুর বেবিস্ট্যান্ডে তাঁকে মারধর করা হয়। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার থানায় মামলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আহত কৃষ্ণকান্ত আটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক। গত ১৫ জুন সম্পন্ন হওয়া উপনির্বাচনে আটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নির্বাচন করে পরাজিত হন তিনি। তাঁর অভিযোগ, হামলাকারীরা নৌকার বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে ঘোড়া প্রতীকের নির্বাচন করেন। তিনি বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক অর্থবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান আমাকে লাঠি দিয়ে পেটাতে শুরু করেন। হাবিবের সঙ্গে তাঁর সহযোগী কামরুজ্জামান কফি ও ওহাব এবং আটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজাহারুল ইসলাম মন্টুর ভাই কাওসারও আমাকে মারধর করেন। এ সময় আমার চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে পালিয়ে যান হামলাকারীরা। তাঁরা আমার স্ত্রী স্কুল শিক্ষিকা দুর্গা রানী দাসকেও অপমান এবং লাঞ্ছিত করেন।

দেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শিবলী সাদিক বলেন, হামলাকারীদের বিরুদ্ধে দলীয় এবং আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দেলদুয়ার থানার ওসি নাছির উদ্দিন মৃধা বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

 



সাতদিনের সেরা