kalerkantho

শুক্রবার । ১২ আগস্ট ২০২২ । ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৩ মহররম ১৪৪৪

আশ্রয়ণের ঘর দুর্বৃত্তরা ভাঙল

ঘটনাস্থল সাটুরিয়া

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৮ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আশ্রয়ণের ঘর দুর্বৃত্তরা ভাঙল

সাটুরিয়া উপজেলার রৌহা আশ্রয়ণ প্রকল্পে নির্মাণাধীন ঘরের পিলার ভেঙে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

সাটুরিয়া উপজেলার রৌহা আশ্রয়ণ প্রকল্পে নির্মাণাধীন ঘরের পিলার ভাঙার ঘটনায় জড়িতদের এখনো চিহ্নিত করতে পারেনি পুলিশ। যদিও ঘটনার পর তিন দিনের বেশি সময় পার হয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটে গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার রাতের মধ্যে।

সাটুরিয়া উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উত্তর রৌহা গ্রামে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ১৫টি ঘরের নির্মাণকাজ চলছে।

বিজ্ঞাপন

গত বৃহস্পতিবার কাজ শেষে বিকেলে নির্মাণ শ্রমিকরা ফিরে যান। শুক্রবার ছিল ছুটির দিন। শনিবার সকালে কাজ করতে এসে শ্রমিকরা দেখেন, আটটি ঘরের নির্মাণ করা বারান্দার পিলার ভেঙে মাটিতে পড়ে রয়েছে।

সূত্রটি জানায়, আশ্রয়ণ প্রকল্পটি স্থাপন করা হচ্ছে প্রায় ২৫ শতাংশ খাসজমিতে। এই জমিতে আগে কয়েকটি পরিবার বিনা অনুমতিতে বসবাস করত। আশ্রয়ণ প্রকল্পের কারণে তাদের সরিয়ে দেওয়া হয়। যাঁরা ওই জমিতে বসবাস করতেন তাঁরা আশ্রয়ণ প্রকল্প স্থাপনে বাধা দিয়েছিলেন। পরে তাঁরা ঘরের বরাদ্দের জন্য আবেদন করেন।

কয়েকজন শ্রমিক জানান, বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত যেসব পিলার গাঁথুনি দেওয়া হয়েছিল কেউ জোরে ধাক্কা না দিলে একা একা পড়ে যাওয়ার কথা নয়। এমনকি জোর বাতাসেও পড়বে না। একেকটা পিলার একেক দিকে পড়ে থাকা দেখেই বোঝা যাচ্ছে যে এগুলো ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. রবিউল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানান। ইউএনও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে তিনি (রবিউল) বাদী হয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনের নামে থানায় মামলা করেন। তিনি আরো জানান, আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরের জন্য দুই শতাধিক আবেদন রয়েছে। বৈধ আবেদনকারীদের মধ্যে লটারির মাধ্যমে ঘর বরাদ্দ দেওয়া হবে।

সাটুরিয়া থানার ওসি মুহাম্মদ আশরাফুল আলম জানান, মামলাটি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করা হচ্ছে।

সাটুরিয়ার ইউএনও শারমিন আরা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর ভাঙচুরের ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। নেপথ্যদের পরিচয় বের করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’

 



সাতদিনের সেরা